kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

এই মুহূর্তে সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করার সুযোগ নেই : সোহেল তাজ

আসছেন ‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ জুলাই, ২০১৯ ০৯:১৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এই মুহূর্তে সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করার সুযোগ নেই : সোহেল তাজ

‘রাজনীতিতে আমি নেই; কিন্তু আমি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। রাজনীতি আমার রক্তে, দেশ আমার রক্তে। এটার বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। এই মুহূর্তে সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করার সুযোগ নেই। মানুষের কাছে আমি ঋণী। মানুষের ভালোবাসা পরিশোধ করতে যাচ্ছি এই অনুষ্ঠানের (হটলাইন কমান্ডো) মধ্য দিয়ে।’

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ লাইফস্টাইল বিষয়ক রিয়ালিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’ অনুষ্ঠান শুরু নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। তিনি বলেন,‘আমার পরিবার দেশের ও আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে সব সময় পাশে ছিল, আমিও সেভাবে আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে সব সময় পাশে থাকব।’ ফিট নেশন

মিডিয়ার ব্যানারে রিয়ালিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’ সম্পর্কে জানাতে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে জানানো হয়, একটি বেসরকারি টেলিভিশনে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে পাক্ষিকভাবে মঙ্গলবার অনুষ্ঠানটির সম্প্রচার হবে। ১২ পর্বের এই অনুষ্ঠানের সঞ্চালকের ভূমিকায় দেখা যাবে বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে সোহেল তাজকে। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, লাইফস্টাইল নিয়ে বিদেশে বেশ কিছু রিয়ালিটি শো হলেও বাংলাদেশে ‘হটলাইন কমান্ডো’ই প্রথম।

‘রাজনীতির বাইরে থেকেও মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা এবং বহুদিন ধরে দেশের মানুষের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য, জীবন যাপনের অভ্যাস ও ধরন, সচেতনতা ও দায়িত্ববোধের বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করতেই এ উদ্যোগ’—বলেন সোহেল তাজ। তিনি বলেন, ‘৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার জন্য দরকার সোনার মানুষ। আর সোনার মানুষ গড়তেই আমার এ উদ্যোগ। বছরের পর বছর আমি ভেবেছি। রাজনীতি করতে গিয়ে মানুষের জন্ম-মৃত্যু, মানুষের কান্না-দুঃখ আমাকে কাছ থেকে দেখতে হয়েছে। আমি মেধা ও চিন্তা দিয়ে সমাজ ও মানুষকে সহায়তা করতে পারব। আমার মেয়েদের বিষয়টি জানালে তারা বলল, মানুষের জন্য যদি কিছু করতে পারো, তাহলে করো।’

সোহেল তাজ বলেন, ‘আজকে সমাজের সমস্যাগুলো যদি আপনি সমাধান না করেন, তাহলে কী করে সোনার বাংলা আপনি গড়বেন? সোনার বাংলা কেউ গড়ে দিতে পারে না। নিজের উদ্যোগ থাকতে হবে। আমার টাকা-পয়সা নেই, ধন-দৌলত নেই; কিন্তু মানুষের ভালোবাসা, আমার পরিচিতি আছে। মানুষের কল্যাণে আমি সেটাকে ব্যবহার করব।’

সোহেল তাজ বলেন, ‘যেকোনো দেশ যখন উন্নতির পথে যায়, তখন বাধা হয় দুর্নীতি। শহীদ তাজউদ্দীন আহমদের সন্তান হিসেবে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে আমি দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যক্তিগতভাবে কাজ করে যাব। সমাজের মানুষের প্রতি আমি আমার ঋণ পরিশোধ করব। সবাইকে নিয়ে সামাজিক ব্যাধিকে লাল কার্ড দেখাতে হবে।’

অনুষ্ঠানটির পরিচালক হিসেবে থাকবেন কাওসার মাহমুদ ও গৌতম কৈরী। সংবাদ সম্মেলনের আয়োজক ফিট নেশন মিডিয়ার সঙ্গে স্পন্সর রেনকন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রম্য রউফ চৌধুরী, সম্প্রচার সহযোগী আরটিভির প্রধান নির্বাহী সৈয়দ আশিক রহমান এবং অনুষ্ঠান নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান কারুজ কমিউনিকেশনসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাওসার মাহমুদ, র‌্যানকন মোটর বাইকস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শন হাকিম, র্যাংগস লিমিটেডের ডিভিশনাল ডিরেক্টর সোয়েব আহমেদ প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, কয়েক মাস ধরে ফেসবুকে সোহেল তাজের একটি ভিডিও নিয়ে নানা মহলে আলোচনা-সমালোচনা তৈরি হয়। তিনি রাজনীতিতে আবার সক্রিয় হচ্ছেন বলেও গুঞ্জন ছড়ায়। মূলত এই রিয়ালিটি শো উপলক্ষেই ফেসবুকে তিনি ওই ভিডিও ছেড়েছিলেন বলে জানা যায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা