kalerkantho

বুধবার । ১৭ জুলাই ২০১৯। ২ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৩ জিলকদ ১৪৪০

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় না কমিউনিটি সেটার!

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০১৯ ১৭:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় না কমিউনিটি সেটার!

পুরান ঢাকার সূত্রাপুর থানার হেমেন্দ্র দাস রোডের একরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কনের গায়েহলুদ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার স্কুল ছুটির পর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এ গায়েহলুদ অনুষ্ঠান চলে।

জানা যায়, এলাকার স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিবর্গের হস্তক্ষেপে প্রতিনিয়ত এ বিদ্যালয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠান হয়। এতে বিদ্যালয়ের সভাপতি জাফর আলম ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আরিফ হোসেন অনুষ্ঠানের অনুমতি দেন।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, এ বিদ্যালয়ে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয়। একটা সরকারি স্কুলে কিভাবে এমন অনুষ্ঠান হয় আমার জানা নেই। তবে এ বিষয়ে প্রশাসনের ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক জানান, আমরা অনুষ্ঠানের জন্য রুম দিতে চাই না। কিন্তু স্থানীয় লোকজন বিভিন্ন হুমকির মাধ্যমে এ রুমগুলো নেয়। এতে আমাদের কিছু করার থাকে না।

বিদ্যালয়ের সভাপতি জাফর আলম বলেন, স্থানীয় দরিদ্র মানুষ যারা কমিউনিটি সেন্টার ভাড়া করতে পারে না তাদেরকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আরিফ হোসেনের অনুমতিসাপেক্ষে এ রুম ব্যবহারের জন্য দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৪৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আরিফ হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা