kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৬ জুলাই ২০১৯। ১ শ্রাবণ ১৪২৬। ১২ জিলকদ ১৪৪০

‘শিশু পাচার প্রতিরোধে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুন, ২০১৯ ২২:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘শিশু পাচার প্রতিরোধে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

শিশু পাচার প্রতিরোধে সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলোকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান মো. ফজলে রাব্বী মিয়া। 

মো. ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, শিশু পাচার ও শিশু শ্রম প্রতিরোধের পাশাপাশি শিশু অধিকার নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে এ বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন। এজন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে একত্রে কাজ করতে হবে।

সভায় ডেপুটি স্পিকার বলেন, শিশুদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর মমতার কারণেই সরকার বাংলাদেশে শিশু বাজেট বরাদ্দ করেছে। এর আগে কোনো সরকার এ ধরনের বাজেট বরাদ্দ দেয়নি। শেখ হাসিনার সরকার শিশুদের কল্যাণে সবসময় উদারতার পরিচয় দিচ্ছেন। তিনি বাংলাদেশের মানুষের জন্য সামাজিক নিরাপত্তার বিধান করেছেন। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে শিশুদের জন্য যে বাজেট বরাদ্দ করা হয় তা সঠিকভাবে সময়মত শিশুদের কল্যাণে যাতে খরচ হয়, সেজন্য মন্ত্রণালয়ের নজরদারি বাড়ানো প্রয়োজন। 

এসময় শিশুদের কল্যাণে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে বাজেটের সুষম ব্যয় নিশ্চিত করতে মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করার আহ্বান জানান ডেপুটি স্পিকার।

কমিউনিটি পার্টিসিপেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (সিপিডি) আয়োজিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন সিপিডি’র নির্বাহী পরিচালক মোসলেমা বারী। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও শিশু অধিকার বিষয়ক সংসদীয় ককাসের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু এবং সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু ও গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার। মূল বক্তব্য উত্থাপন করেন ইনসিডিন বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক এ কে এম মাসুদ আলী। 

সাংবাদিক নিখিল ভদ্রের সঞ্চালনায় সভায় বক্তৃতা করেন শিশু প্রতিনিধি মো. আরিফ, ইনসিডিন প্রতিনিধি মো. রফিকুল ইসলাম খান, বিএনডব্লিউএলএ’র জান্নাতুল ফেরদৌস, অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন প্রোগ্রামের লিমন ইসলাম ও সিপিডি’র শরিফুল্লাহ রিয়াজ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা