kalerkantho

সোমবার। ১৫ জুলাই ২০১৯। ৩১ আষাঢ় ১৪২৬। ১১ জিলকদ ১৪৪০

কালের কণ্ঠ প্রাঙ্গণে 'মুক্তিযুদ্ধের ভ্রাম্যমাণ বইমেলা'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জুন, ২০১৯ ১৭:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কালের কণ্ঠ প্রাঙ্গণে 'মুক্তিযুদ্ধের ভ্রাম্যমাণ বইমেলা'

ছবি : কালের কণ্ঠ

অনন্য এক উদ্যোগ। লাইব্রেরিসদৃশ ট্রাকের ভেতরে থরে থরে সাজানো বই। আর সব বই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে লেখা। স্বাধীনতার মহান স্থপতির নিজের লেখা বইও শোভা পেয়েছে সেখানে। চমৎকার এ আয়োজনটির শিরোনাম 'মুক্তিযুদ্ধের ভ্রাম্যমাণ বইমেলা'। 

আজ মঙ্গলবার কালের কণ্ঠ’র বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রধান কার্যালয়ে শ্রাবণ প্রকাশনীর ‘মুক্তিযুদ্ধের ভ্রাম্যমাণ বইমেলা’ চলছে। সকাল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এ বইমেলা চলবে। মেলায় মুক্তিযুদ্ধের নির্বাচিত বইয়ে থাকছে ২০ শতাংশ ছাড়। এ ছাড়া শ্রাবণ প্রকাশনীর বইয়ে ৩০ শতাংশ ছাড়।

কালের কণ্ঠের নির্বাহী সম্পাদক ও জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামাল বলেন,  শ্রাবণ প্রকাশনীর কর্ণধার রবীন আহসানের সঙ্গে আমার পরিচয় দীর্ঘ ২৫ বছরের। রবীন যখন তার ফেসবুকে ভ্রাম্যমান বইমেলার আইডিয়াটা শেয়ার করেছিলেন তখন থেকেই আমার কাছে মনে হয়েছে এটা একটা ইনোভেটিভ আইডিয়া এবং খুবই ভালো উদ্যোগ। তখন আমি চিন্তা করলাম আমাদের কালের কণ্ঠ প্রাঙ্গনেও এটা হতে পারে। 

মোস্তফা কামাল আরো বলেন, শ্রাবণ প্রকাশনী একটা স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করেছে। বই ভর্তি গাড়ি নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছে। মানুষকে মুক্তিযুদ্ধের বই পড়াচ্ছে। একটা নতুন আইডিয়া, সেটা বাস্তবে রূপ নিয়েছে। এটা দেখে খুব ভালো লাগছে।

প্রকাশক রবীন আহসান জানান, 'ইতিহাস ধরব তুলে, বই যাবে তৃণমূলে’ প্রতিপাদ্যে দেশে প্রথমবারের মতো মুক্তিযুদ্ধের বই নিয়ে ভ্রাম্যমাণ বইমেলা শুরু করেছে শ্রাবণ প্রকাশনী। শ্রাবণ প্রকাশনীসহ দেশের বিভিন্ন প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত নির্বাচিত মুক্তিযুদ্ধের বই দিয়ে সাজানো হয়েছে ভ্রাম্যমাণ মেলার গাড়ি।


 
ভ্রাম্যমাণ বইমেলায় ইউপিএল থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ও বাংলা একাডেমি থেকে ‘কারাগারের রোজনামচা’ পাওয়া যাচ্ছে। সে সঙ্গে সিআরইউ থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ অবলম্বনে চিত্রিত পাঁচটি গ্রাফিক নবেলও বিক্রয় করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা দেশের খ্যাতিমান লেখকদের নির্বাচিত প্রায় একশত গ্রন্থ ঠাঁই পেয়েছে এই ভ্রাম্যমাণ বইমেলায়। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা