kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

আমরা সৌরভকে অক্ষত অবস্থায় ফেরত চাই : সোহেল তাজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুন, ২০১৯ ২১:১৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আমরা সৌরভকে অক্ষত অবস্থায় ফেরত চাই :  সোহেল তাজ

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজের ভাগ্নে সৈয়দ মো. ইফতেখার আলম সৌরভকে ফিরে পেতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন নিখোঁজের বাবা ও মা। সংবাদ সম্মেলনে সোহেল তাজ উপস্থিত থেকে বলেন, আমরা সৌরভকে জীবিত এবং অক্ষত অবস্থায় ফেরত চাচ্ছি। যদি কেউ আইন বহির্ভূতভাবে এবং ক্ষমতার অপব্যবহার করে এ অপহরণের ঘটনা ঘটিয়ে থাকেন তা হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার বিনীত অনুরোধ করছি। 

আজ সোমবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে সোহেল তাজ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সৌরভের বাবা মো. ইদ্রিস আলম ও মা সৈয়দা ইয়াসমিন আরজুমান। এসময় সৌরভকে ফিরে পাওয়ার দাবি জানিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সৌরভের মা।

লিখিত বক্তব্যে ইয়াসমিন আরজুমান জানান, ২০১৭ সালে সৌরভের সঙ্গে সওদা নামে এক মেয়ের পরিচয় হয়। পরিচয় থেকে প্রেম এবং এক পর্যায়ে তারা টেলিফোনে বিয়েও করে। আর এ বিয়েটিও হয় মেয়ের চাপাচাপিতে। সব কিছু জেনেও সওদাকে তার বাবা জোর করে অন্য জায়গায় বিয়ে দেন। ২০১৮ সালের এপ্রিল-মে এর কোন সময় ওই বিয়ে ভেঙ্গে যায়। বিয়ে না টেকার জন্য মেয়ের বাবা আজাদ চৌধুরী সৌরভকে দোষারোপ করেন এবং প্রাণনাশের হুমকি দেন। সৌরভের মা দাবি করেন এরপর থেকেই তার ছেলের বিরুদ্ধে ওঠে পড়ে লাগে মেয়ের বাবা। বিভিন্ন বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে সওদার সঙ্গে যোগাযোগ না করার কথা বলে সৌরভকে প্রাননাশের হুমকি দেওয়া হয় বিভিন্ন সময়ে। 

তিনি আরো জানান, গত ৯ জুন দুপুর ৩টার সময় একটি বিশেষ বাহিনীর কর্মকর্তা ফোন করে চাকরি দেয়ার কথা বলে তাকে ডেকে নেয়। এর পর থেকে সৌরভ নিখোঁজ।  

কান্না জড়িত কণ্ঠে সৌরভের মা বলেন, আমি আমার সন্তানকে ফিরে পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এসময় এক সাংবাদিক সোহেল তাজের কাছে জানতে চান, রাষ্ট্রীয় কোন বাহিনী কোন ব্যক্তির হয়ে কাজ করতে পারে কি না? এমন প্রশ্নের কোন উত্তর দেননি সোহেল তাজ। তিনি জানান ভাগ্নে নিখোজ হয়েছে বলেই তিনি এ সংবাদ সম্মেলনে এসেছেন বোনকে সহায়তা করার জন্য। 

এক প্রশ্নের জবাবে সোহেল তাজ জানান, নিখোঁজ হওয়ার খবর জানার পর তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি ও র্যাবের উধ্বতনদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, কাউকে ছোট করা বা আঘাত করা আমাদের উদ্দেশ্য নয়, আমরা ছেলেটাকে ফেরত চাই। আমাদের উদ্দেশ্যে হলো ছেলেটিকে জীবিত অক্ষত অবস্থায় তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে আনার। ছেলেটি তার মায়ের কাছে ফিরে আসুক।  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা