kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বললেন

কৃষকের পাকা ধানে আগুন জাতির জন্য দুর্ভাগ্যজনক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ মে, ২০১৯ ০২:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কৃষকের পাকা ধানে আগুন জাতির জন্য দুর্ভাগ্যজনক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘দেশে গণতান্ত্রিক সরকার নেই বলে কৃষকের কপাল পুড়েছে। কৃষক ধান বিক্রি করে উত্পাদন খরচও পাচ্ছে না। আর তাই তারা মনের দুঃখে পাকা ধানের ক্ষেত আগুনে পুড়িয়ে দিচ্ছে। এটি জাতির জন্য চরম লজ্জা ও দুর্ভাগ্যজনক।’ গতকাল বুধবার রাজধানীর শনির আখড়ার একটি কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকার হোমনা উপজেলা জাতীয়তাবাদী ফোরাম আয়োজিত ইফতারপূর্ব এক আলোচনাসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ড. মোশাররফ বলেন, ‘সরকার চাল রপ্তানির কথা চিন্তা করছে, অন্যদিকে আমদানিও করছে। যদি চালের মজুদ পর্যাপ্তই থাকে, তাহলে আবার আমদানি কেন? তিনি আরো বলেন, ‘কৃষককে ধানের ন্যায্য মূল্য দিতে সরকারের কোনো মাথাব্যথা নেই। এতে করে আগামী দিনে কৃষক ধান উত্পাদন করবে না। দেশ হবে চাল আমদানিনির্ভর। যা দেশের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলবে।’

ড. মোশাররফ বলেন, ‘খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছেন, এটাই তাঁর বড় অপরাধ। তিনি সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। সরকারের হস্তক্ষেপের কারণেই খালেদা জিয়ার জামিন হচ্ছে না। কারান্তরীণ রেখে তাঁর জীবন বিপন্ন করা হচ্ছে। বেগম জিয়াকে মুক্ত করে তাঁর নেতৃত্বে আন্দোলনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে এই সরকারকে বাধ্য করা হবে। আর এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।’

হোমনা উপজেলা জাতীয়তাবাদী ফোরামের সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শ্রমিক দল নেতা এ কে এম ফজলুল হক মোল্লা, স্থানীয় কাউন্সিলর আলহাজ মো, জুম্মন মিয়াসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা