kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

ঋণ করে কেনা চিনি নিয়ে সংসদীয় কমিটির ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ মে, ২০১৯ ০২:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঋণ করে কেনা চিনি নিয়ে সংসদীয় কমিটির ক্ষোভ

অগ্রণী ব্যাংক থেকে ৫০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে বিদেশ থেকে আমদানি করা চিনি গুদামে মজুদ রেখেছে চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন। অথচ রমজানের প্রথম ভাগ শেষ হলেও কী কারণে এখনো ওই চিনি বাজারে ছাড়া হয়নি তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে এ বিষয়ে জানতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যাখা চেয়েছে তারা। গতকাল বুধবার বিকেলে সরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। 

জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আ স ম ফিরোজ। বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, ইসমাত আরা সাদেক, নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, মাহবুবউল আলম হানিফ, মির্জা আজম, মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, মো. জিল্লুল হাকিম ও মুহিবুর রহমান মানিক। এ ছাড়া বিশেষ আমন্ত্রণে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মজাহারুল হক প্রধান।

বৈঠক শেষে আ স ম ফিরোজ বলেন,  ‘৫০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে কেন চিনি কেনা হলো? আর সেই চিনি এখনো কেন গুদামে? মিলের উত্পাদিত চিনি বিক্রি হয় না। অথচ বিদেশ থেকে আমদানি করা চিনি গুদামে ফেলে রাখা হয়েছে। এটা কার স্বার্থে?’ তিনি আরো বলেন, ‘এসব বিষয়ে জানতে চাইলে কোনো প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারেনি করপোরেশন বা মন্ত্রণালয়। কমিটি এ ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী বৈঠকে বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।’

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে আখ চাষিদের বকেয়া প্রায় দেড় শ কোটি টাকা ঈদের আগেই পরিশোধের জন্য চিনি শিল্প করপোরেশনকে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। কমিটি ক্ষেত থেকে আখ কাটার পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তা মাড়াইয়ের সুপারিশ করেছে। এ ছাড়া ইক্ষু গবেষণা কেন্দ্রটি কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে ফিরিয়ে আনা যায় কি না তা নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য