kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

বাজার থেকে ৫২ পণ্য সরিয়ে নিতে নির্দেশ হাইকোর্টের

ভেজাল ও নিম্নমান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ মে, ২০১৯ ০৯:০২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাজার থেকে ৫২ পণ্য সরিয়ে নিতে নির্দেশ হাইকোর্টের

বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় প্রমাণিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভেজাল ও নিম্নমানের ৫২টি পণ্য অনতিবিলম্বে বাজার থেকে সরাতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে পুনরায় পরীক্ষায় মান উন্নীত না হওয়া পর্যন্ত নতুন করে ওই সব পণ্য উৎপাদন ও বিক্রি বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই আদেশ কার্যকর করে আগামী ২৩ মের মধ্যে আদালতে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল  রবিবার এ আদেশ দেন। ভোক্তা অধিকার সংস্থা কনসাস কনজ্যুমার্স সোসাইটির (সিসিএস)  নির্বাহী পরিচালক পলাশ মাহমুদের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেওয়া হয়। রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার শিহাব উদ্দিন খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার ফরিদুল ইসলাম। এ সময় নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের পরিচালক ড. সহদেব চন্দ্র সাহা ও বিএসটিআইয়ের উপপরিচালক মো. রিয়াজুল হক উপস্থিত ছিলেন।

ভেজাল ও নিম্নমানের ৫২টি পণ্যের বিষয়ে গত ৩ মে কালের কণ্ঠে ‘৫২ প্রতিষ্ঠানকে বিএসটিআইয়ের কারণ দর্শানোর নোটিশ, নামিদামি প্রতিষ্ঠানের পণ্যও নিম্নমানের’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এরপর এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে খাদ্য ও বাণিজ্য সচিব, বিএসটিআইয়ের মহাপরিচালক, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আইনি নোটিশ দেওয়া হয়। নোটিশের জবাব না পেয়ে গত ৮ মে রিট আবেদন করা হয়।

ভেজাল ৫২ পণ্য ও প্রতিষ্ঠানের নাম বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) পরীক্ষায় প্রমাণিত কম্পানি এবং ভেজাল ও নিম্নমাণের পণ্যগুলো হলো—সিটি অয়েলের তীর সরিষার তেল, গ্রিন ব্লিচিং ভেজিটেবল অয়েলের জিবি সরিষার তেল, শবনম ভেজিটেবল অয়েলের পুষ্টি সরিষার তেল, বাংলাদেশ এডিবল অয়েলের রূপচাঁদা সরিষার তেল, আরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজের আরা ড্রিংকিং ওয়াটার, আলসাফি ড্রিংকিং ওয়াটার, শাহারী অ্যান্ড ব্রাদার্সের মিজান ড্রিংকিং ওয়াটার, মর্ন ডিউ  ড্রিংকিং ওয়াটার, ডানকানের ন্যাচারাল মিনারেল ওয়াটার, আরআর ডিউ ড্রিংকিং ওয়াটার, দিঘি ড্রিংকিং ওয়াটার, নিউজিল্যান্ড ডেইরি প্রডাক্টের ডুডলি নুডলস, শান্ত ফুডের (টেস্টি, তানি, তাসকিয়া) সফট ড্রিংক পাউডার, জাহাঙ্গীর ফুডের প্রিয়া সফট ড্রিংক পাউডার, প্রাণের কারি পাউডার, ড্যানিশের কারি পাউডার, ড্যানিশের হলুদের গুঁড়া, প্রাণের হলুদের গুঁড়া, সূর্যের মরিচের গুঁড়া, মঞ্জিলের হলুদের গুঁড়া, ফ্রেশের হলুদের গুঁড়া, এসিআইয়ের ধনিয়ার গুঁড়া, পিওর হাটহাজারী মরিচ গুঁড়া, সান ফুডের হলুদের গুঁড়া, ডলফিনের হলুদ ও মরিচের গুঁড়া, মিষ্টিমেলা লাচ্ছা সেমাই, জেদ্দার লাচ্ছা সেমাই, অমৃতের লাচ্ছা সেমাই, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, মিঠাইয়ের লাচ্ছা সেমাই, অয়েল ফুডের লাচ্ছা সেমাই, প্রাণের লাচ্ছা সেমাই, কিরণের লাচ্ছা সেমাই, এসিআইয়ের আয়োডিনযুক্ত লবণ, মধুমতির আয়োডিনযুক্ত লবণ, দাদা সুপারের আয়োডিনযুক্ত লবণ, মদিনার আয়োডিনযুক্ত লবণ, নুরের আয়োডিনযুক্ত লবন, মোল্লা সল্টের আয়োডিনযুক্ত লবণ, কিংয়ের ময়দা, রূপসার দই, মক্কার চানাচুর, কাশেম ফুডের সান চিপস, মেহেদীর বিস্কুট, বাঘাবাড়ীর স্পেশাল ঘি, বনলতার ঘি, নিশিতা ফুডসের সুজি ও গ্রিন লেনের মধু।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা