kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতাল

যৌন হয়রানি আন্দোলনে নার্সরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০৩:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌন হয়রানি আন্দোলনে নার্সরা

রাজধানীর উত্তরায় কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালের পরিচালক আমিরুল হাসানের দ্রুত অপসারণ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে নার্সরা। ওই হাসপাতালের একজন সিনিয়র নার্সকে যৌন হয়রানি, শ্লীলতাহানি ও প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদে আন্দোলনে নামছে তারা।

গতকাল শনিবার বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএনএ) সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ইসমত আরার সভাপতিত্বে ও মহাসচিব জামালউদ্দিন বাদশার সঞ্চালনায় জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। প্রাথমিক কর্মসূচি হিসেবে আজ রবিবার রাজধানীসহ সারা দেশে মানববন্ধন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। দুপুর ২টায় শহীদ মিনারে মানববন্ধন করবেন কেন্দ্রীয় নেতারা। দাবি আদায় না হলে আরো কঠোর আন্দোলনের ইঙ্গিত দিয়েছেন তাঁরা।

এদিকে যৌন হয়রানি ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালের পরিচালক আমিরুল হাসানের বিরুদ্ধে তদন্তে নেমেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। একজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে অভিযোগের সত্যতা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

অভিযোগকারী সিনিয়র নার্স গতকাল শনিবার গণমাধ্যমকে বলেন, পরিচালকের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও নার্সিং অধিদপ্তরে অভিযোগ করার পর থেকে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। হাসপাতাল পরিচালক নানা অজুহাতে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিচ্ছেন। হত্যার হুমকি-ধমকিও দেওয়া হচ্ছে। শনিবারও তৃতীয় দফায় কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, হাসপাতাল পরিচালক তাঁর বাবার বয়সী হলেও নানা প্রলোভনে হুমকি-ধমকি দিয়ে শয্যাসঙ্গী করতে চেয়েছেন। দিনের পর দিন মানসিক নির্যাতন করেছেন। নোংরা কথা শুনে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিলেও স্বামী আর সন্তানদের কথা ভেবে তা করিনি। এখন তিনি সুবিচারের অপেক্ষায় রয়েছের বলেও জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা