kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

'নির্বাচনের নামে তামাশা আগে কোনো সরকারের আমলে হয়নি'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মার্চ, ২০১৯ ১৫:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'নির্বাচনের নামে তামাশা আগে কোনো সরকারের আমলে হয়নি'

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, যদি বাংলাদেশে ফেয়ার নির্বাচন হয়, আগে তো ১০টি সিট দিতাম, এখন শেখ হাসিনার জেতাও কষ্ট হয়ে যাবে। আওয়ামী লীগের মাজা শেখ হাসিনা কি ভাবে ভেঙে ফেলেছেন। বিএনপির মাজা ভাঙেন নাই, শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের মাজা ভেঙে ফেলেছেন।

আজ রবিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দুদু বলেন, আমাদের ডিজিটাল প্রধানমন্ত্রী, নির্বাচন ছাড়া প্রধানমন্ত্রী, গায়ের জোরের প্রধানমন্ত্রী সবকিছু দেখতে পারেন। ব্যাংক দেখতে পারেন, টাকা দেখতে পারেন, আত্মীয়দের দেখতে পারেন, বিএনপির নেতাকর্মী‌দের কিভাবে জেলে ভরতে হয়, নির্যাতন করতে হয় তা দেখতে পারেন কিন্তু শিক্ষকদের যে সমস্যা তার নজরে আসে না।

বিএনপির এই নেতা ব‌লেন, নির্বাচন কি জিনিস ব্রিটিশ আমল, পাকিস্তান আমলে মানুষ ‌দে‌খে‌ছে। আর বাংলাদেশে শেখ হাসিনার আমলে নির্বাচন নামে তামাশা এর আগে কোনো সরকারে আমলে মানুষ দেখেনি। নির্বাচন নিয়ে তামাশা হানাদার বাহিনী, পাকিস্তানি বাহিনী, ব্রিটিশ বা‌হিনীর কেউ পারেনি। কিন্তু শেখ হাসিনা পেরেছেন।

তিনি ব‌লেন, বেগম জিয়া দে‌শের খুবই জন‌প্রিয় নেত্রী। শহীদ জিয়াউর রহমান রাষ্ট্রপতি থাকা অবস্থায় এবং তার মৃত্যুর পরে বেগম খালেদা জিয়া যে সুযোগ সুবিধা পেতেন তার সব কিছু ছেড়ে রাস্তায় নেমে এসেছিলেন স্বৈরাচারী আইনের বিরুদ্ধে, দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করার জন্য। তিনি ৯/১০ বছর আন্দোলন করেছেন। তার অনেক সহকর্মী এরশাদের সাথে হাত মিলিয়ে ছিল।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হতাশ হওয়ার কিছু নাই। বেগম খালেদা জিয়া, তারেক রহমান আছেন। বিএনপি আছে, দেশের মানুষ তাদের ওপর ভরসা করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে।

আলোচনা সভায় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষক দলের যুগগ্ম-আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন মাস্টার, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মিয়া মোহাম্মাদ আনোয়ার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা