kalerkantho

'ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া আজীবন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৪৭ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



'ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া আজীবন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করবে'

বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট শিল্পপতি আহমেদ আকবর সোবহান বলেছেন, ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ আজীবন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে, স্বাধীনতার পক্ষে কাজ করবে। এদেশের তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা এবং যুদ্ধের সময় স্বাধীনতাবিরোধীদের ভূমিকা কী ছিল- তা জানাতে আমাদের মিডিয়া কাজ করবে।

দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের দশম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আজ শনিবার রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) নবরাত্রী হলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর.কম, বাংলাদেশ প্রতিদিন, দৈনিক কালের কণ্ঠ, ডেইলি সান, নিউজটোয়েন্টিফোর টেলিভিশন ও রেডিও ক্যাপিটাল ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের প্রতিষ্ঠান। আমি সব সময় একটি কথাই বলি- স্বাধীনতার স্বপক্ষে, মুক্তিযদ্ধের পক্ষে আমাদের মিডিয়া আজীবন কাজ করবে।

তিনি আরো বলেন, এদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাকে আজীবন বাঁচিয়ে রাখতে হবে। আজকের তরুণদের জানাতে হবে এদেশ কিভাবে স্বাধীন হয়েছে। এদেশ কারা কিভাবে স্বাধীন করেছে। স্বাধীনতাবিরোধীদের ভূমিকা কী ছিল সেটাও তরুণ প্রজন্মকে জানাতে হবে। আশা করছি ইতিমধ্যে এই তরুণ প্রজন্ম সব কিছু জেনেছে। আমি মনে করি প্রথম শ্রেণি থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত সব শ্রেণিতে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা বিষয়ে একটি পাঠ্যপুস্তক থাকা উচিত।

৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের নাম কখনো ভোলার নয় উল্লেখ করে বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান বলেন, আমরা অত্যন্ত আনন্দিত যে আমাদের প্রধানমন্ত্রী নারী, স্পিকার নারী, অনেক বিশিষ্টজনও নারী। বাংলাদেশ প্রতিদিনে ১০ বছর ধরে নারীদের নিয়ে প্রতিদিন একটি করে লেখা প্রকাশিত হচ্ছে। নারীরা যেন সবকিছুতে অগ্রগামী থাকতে পারে। আজকে নারী-পুরুষে কোনো ভেদাভেদ নেই। বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় নারীরা এখন এগিয়ে।

আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, আমি সম্পাদক নঈম নিজামসহ বাংলাদেশ প্রতিদিনের সবাইকে বলেছি- তোমরা বড় হয়েছো, বড়টা ধরে রাখা অনেক কঠিন। এটা ধরে রাখার জন্য আজীবন পরিশ্রম করতে হবে। প্রতিদিন সংগ্রাম করতে হবে। প্রতিদিন পরীক্ষা দিতে হবে। একদিন পত্রিকা খারাপ হলে সেখান থেকে সমালোচনা শুরু হয়। কোনো ভুল করা যাবে না। জনগণের পক্ষে আমরা আজীবন থাকব। জনগণের পক্ষে থাকতে গিয়ে আমাদের সম্পাদকরা, প্রকাশক ও সংবাদকর্মীরা অনেক মামলা-মোকাদ্দমার শিকার হয়েছেন। আগামী দিনেও মামলা হতে পারে। কিন্তু আমরা সত্য থেকে বিচ্যুত হবো না।

তিনি বলেন, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম এবং ঢাকা সিটির দুই মেয়র (উত্তরে- আতিকুল ইসলাম ও দক্ষিণে- সাঈদ খোকন) মিলে ঢাকাকে সুন্দর করা কোনো কঠিন বিষয় নয়। কেবল আমাদের সবার কমিটমেন্ট ঠিক থাকতে হবে। গণপূর্তমন্ত্রী একজন বিশিষ্ট আইনজ্ঞ। তার লেখায় জানতে পারলাম, এখনো তিনি হাইকোর্টকে মিস করেন। আমি মনে করি গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রীর কাজ করার বিরাট সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ঢাকা সিটিসহ পুরো দেশকে সুন্দর করার দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী তাকে দিয়েছেন। আমরা একটি সুন্দর বাংলাদেশ দেখতে চাই। এজন্য ঢাকার দুই মেয়রসহ দেশের সব মেয়ররা মন্ত্রীকে সহযোগিতা করবেন।

আগামী দিনে স্বাধীনতার জন্য, মুক্তিযুদ্ধের জন্য, বাংলাদেশের মানুষের ভালোর জন্য, অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য যা যা দরকার ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ তার জন্য সাধ্যের সব করবে জানিয়ে বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের দেশের মানুষের আরও উন্নয়ন হোক, জিডিপি ডাবল ডিজিটে নিয়ে যেতে ব্যবসায়ীরা কাজ করে যাবো।

দেশের অন্য সংবাদমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, আপনারা বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রচার করুন। এটি মিডিয়ার সবচেয়ে বড় কাজ। সেই কাজটি আমরা চেষ্টা করছি, করে যাচ্ছি। সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিন, আসুন বাংলাদেশকে দেখুন। যতোদিন ইস্ট-ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের পত্রিকা থাকবে, ততোদিন আমরা বাংলাদেশকে ব্র্যান্ডিং করব। কারণ বাংলাদেশ আজ আমাদের এখানে নিয়ে এসেছে। আমাদের মতো ব্যবসায়ী, নঈম নিজামের মতো সম্পাদক ও মেয়রদের কারণে মাথা উঁচু করে বলতে পারি- ‘আমরা বাংলাদেশি’।

তিনি আরো বলেন, এক সময় বাংলাদেশের নাম শুনলে বিদেশিরা বলতো- ‘ইট ইজ অ্যা বটমলেস বাস্কেট’। আজ বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে সারাবিশ্ব অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে থাকে। আমি বলব বাংলাদেশ দীর্ঘজীবী হোক, আমরা সবাই যেন দেশের পক্ষে কাজ করতে পারি। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ এক নম্বর হোক, আমরা সেই আশা করছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা