kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

হাইকমিশনার মোয়াজ্জেম আলী

বাংলাদেশ-ভারত সম্পৃক্ততার নিদর্শন বিদ্যুৎ খাত

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২০ মার্চ, ২০১৯ ০৪:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশ-ভারত সম্পৃক্ততার নিদর্শন বিদ্যুৎ খাত

হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী

বিদ্যুৎ খাত বাংলাদেশ ও ভারতের নতুন করে সম্পৃক্ততার নিদর্শন বলে জানিয়েছেন ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী। তিনি গতকাল মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে দক্ষিণ এশিয়া অধ্যয়নকেন্দ্রে এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে এ কথা জানান।

‘ভারতের জ্বালানি নিরাপত্তা : আন্ত অঞ্চল সহযোগিতা থেকে জ্বালানি নিরাপত্তা সমাজ’ শীর্ষক ওই সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন দক্ষিণ এশিয়া অধ্যয়নকেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক ড. ভরদোয়াজ।  
হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী বলেন, ‘বিদ্যুত্ খাতে আমাদের দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতায় ইতিবাচক মাত্রা এসেছে এবং এ পর্যন্ত অর্জনগুলো অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নেতৃত্বের কারণেই ভারতের সঙ্গে বিদ্যুত্ খাতে সহযোগিতা সম্প্রসারিত হয়েছে।’

হাইকমিশনার আরো বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাদের দুই দেশের অংশীদারিকে ‘কৌশলগত অংশীদারির অনেক ওপরে উন্নীত করেছেন’। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের।”

বর্তমানে বাংলাদেশ ভারত থেকে এক হাজার ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করছে উল্লেখ করে হাইকমিশনার বলেন, জ্বালানি খাতে দুই দেশ অত্যন্ত বাস্তবসম্মত সহযোগিতা করছে। এ ছাড়া পারমাণবিক বিদ্যুৎ ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে এখন পরস্পরকে সহযোগিতা করছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত এখন উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। বাংলাদেশ, ভারত ও ভুটান এক হাজার ১২৫ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য ত্রিপক্ষীয় বিনিয়োগের বিষয়ে আলোচনা করছে।

এ ছাড়া বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের অংশগ্রহণে একটি ত্রিপক্ষীয় জলবিদ্যুৎ প্রকল্প বিবেচনাধীন। নেপাল থেকে ভারতের ওপর দিয়ে বাংলাদেশে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে জিএমআর ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের একটি চুক্তি সই হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা