kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৪ অক্টোবর ২০১৯। ৮ কাতির্ক ১৪২৬। ২৪ সফর ১৪৪১       

দেশে সকল ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করা হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশে সকল ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করা হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, যানজট নিরসনের জন্যই মেট্রোরেল তৈরি করা হচ্ছে। এটাকে আমরা ইতিবাচকভাবে দেখি। কারণ কিছু সুযোগ-সুবিধা ভোগ করার জন্য প্রথমে একটু কষ্ট করতেই হবে।

আজ রবিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের উদ্যোগে ‘এক দশকের উন্নয়ন: পরিপ্রেক্ষিত গ্রামীণ জনপদ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

এম এ মান্নান বলেন, দেশে সকল ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর করা হবে। তবে সবার মাথা কেটে সমান করা, এটা বৈষম্য দূর করা নয়। বৈষম্য দূর করা হবে দেশের সকল নাগরিক সমান অধিকার পাচ্ছে কিনা, ভালো ভাবে জীবন যাপন করতে পারছে কিনা সেটা দেখে।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি, দেশের প্রায় সকল খাতেই বাস্তবায়নের ঘাটতি আছে। আমরা সেই বাস্তবায়নের ঘাটতি পূরণের জন্য কাজ করে যাচ্ছি, জনবল নিচ্ছি। আশা করছি অচিরেই সে ঘাট খাত গুলো পূরণ হবে।

এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, শহর মানুষকে টানে। কারণ এখানে কর্মসংস্থান আছে, চাকরি আছে। গ্রামের মানুষের শহরের প্রতি আকর্ষিত হয়ে চলে আসাটা যেন আমরা কমাতে পারি তার জন্য শহরের কিছু আকর্ষণীয় বিষয় আমাদের গ্রামে নিয়ে যেতে হবে।

সৌদি আরব থেকে আমাদের দেশের সকল মহিলাদের ফিরিয়ে আনতে হবে এবং কোনো পুরুষ যেন না যেতে পারে তার ব্যবস্থা করতে হবে। কারণ, সৌদি আরব থেকে যে অপসংস্কৃতি আমাদের দেশে আসছে এটা জঙ্গিবাদ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও কলামিস্ট মেজর জেনারেল এ কে মোহাম্মদ আলী সিকদার (অব.) বলেন, মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ, চেতনা, আদর্শের দর্শন গত দশ বছরে একাধারে পরিচালিত হয়েছে বলেই এই উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। তবে পশ্চাৎপদতা, ধর্মান্ধতা যেটি ২০০১-৭ সাল পর্যন্ত ছিল, সেটি থাকলে উন্নয়ন সম্ভব হতো না এটি সত্য।

সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম এ মান্নান, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ প্রমুখ। সেমিনারের শুরুতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও কলামিস্ট অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা