kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ আগস্ট ২০১৯। ৭ ভাদ্র ১৪২৬। ২০ জিলহজ ১৪৪০

অবৈধ সিগারেট বাজারজাতকরণের বিরুদ্ধে প্রচারণা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অবৈধ সিগারেট বাজারজাতকরণের বিরুদ্ধে প্রচারণা

সরকারের ট্যাক্স ফাঁকি দেওয়া অবৈধ সিগারেটের বিরুদ্ধে সারাদেশের মতো সিলেটের সর্বত্র পোস্টার সাঁটিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে সিলেট কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

সিলেট বিভাগের প্রত্যন্ত অঞ্চল ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিটি সিগারেটের দোকানে সাঁটানো হয়েছে এনবিআরের সচেতনতামূলক পোস্টার। মূলত ধূমপায়ীর সংখ্যা কমানো ও রাজস্ব আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে সরকার প্রতি বছর সিগারেটের দাম বাড়িয়ে থাকে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে নিম্ন স্তরের প্রতি প্যাকেট (১০ শলাকা প্যাকেট) সিগারেটের দাম ২৭ টাকা থেকে বেড়ে ৩৫ টাকা করা হয়। ৩৫ টাকা প্যাকেটের সিগারেট থেকে বিভিন্ন কর বাবদ সরকারকে পরিশোধ করতে হয় প্রায় ২৫ টাকা। সরকারি রাজস্বের টাকা সিগারেট বাজারজাতকরণ করার আগেই পরিশোধ করতে হয়। তাই বৈধভাবে কেউ সিগারেট বাজারজাত করতে চাইলে অবশ্যই ৩৫ টাকায় বিক্রি করতে হবে। কিন্তু সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কিছু অসাধু উৎপাদনকারী মাত্র ১৫-২০ টাকা দামে সিগারেট বিক্রি করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে এনবিআরের পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়। গত কয়েক মাসে সিলেটে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবির সহায়তায় লাখ লাখ টাকার অবৈধ সিগারেট জব্দ করে কাস্টমস বিভাগ। মামলাও হয়েছে ৮-১০টি। এ ছাড়া এনবিআরের পক্ষ থেকে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করা হয়েছে। 

সিলেট এনবিআরের ওই প্রচারণার ব্যাপারে সিলেট কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার আহমেদ রেজা জানান, প্রচারণার ফলে সচেতনতা বেড়ছে। এতে করে সরকারের রাজস্ব আয়ও বাড়ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা