kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

নাসিম হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ১২:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাসিম হত্যার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

রাজধানীর বাড্ডায় বিপিএল খেলা নিয়ে জুয়ার আসরে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নাসিম আহমেদ এমাজউদ্দিন (২৪) নিহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি আসিফ শিকদারকে (২১) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গুলশান বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার (বাড্ডা জোন) আশরাফুল করিম গণমাধ্যমকে জানান, বাড্ডায় ছুরিকাঘাতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নাসিম নিহতের ঘটনার দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি আসিফ শিকদারকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই ঘটনায় আসিফ একাই জড়িত।

উল্লেখ্য, ৬ নভেম্বর (সোমবার) সকাল ৯টার দিকে রাজধানীর বাড্ডা থানাধীন পোস্ট অফিসের গলির ৩৭৫ নম্বর দাগের ৪ নম্বর নিজ বাসার সামনে নাসিমের গলায় ও কোমরে ৩টি স্থানে ছুরিকাঘাত করা হয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন গুলশান বিভাগ পুলিশের উপকমিশনার মোস্তাক আহমেদ, বাড্ডা জোনের সহকারী কমিশনার আশরাফ আলী ও বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী। পরবর্তীতে র‌্যাব, পিবিআই, ডিবি পুলিশও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ও নিহতের স্বজনদের সঙ্গে দেখা করে।

নিহতের ছোট ভাই ইম্পেরিয়াল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র নাবিল আহমেদ জানান, বিপিএল খেলা নিয়ে বোর্ড (ক্যারাম বোর্ড) ঘরে রমরমা জুয়ার আসর চলছিল। সেখানে সন্ধ্যার পর ক্যারাম খেলতেন ভাই নাসিম। গত রাতে নাসিম ক্যারাম খেলতে গিয়ে দেখেন বিপিএলের ম্যাচ নিয়ে মোটা অংকের জুয়া চলছিল। এতে বাধা দেন তিনি। বাধার মুখে রমজান আলী, আসিফ, রশিদ, শহীদুল ও রফিক নামে স্থানীয়দের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয় নাসিমের। ঘটনা হাতাহাতি পর্যন্তও গড়ায়। নাবিল জানান, বিষয়টি আপস করতে গেলে রমজান ও রশিদ মারধর করেন নাসিমের বাবাকে। মহল্লার বড়ভাইরা বিষয়টি মীমাংসা করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আজ (সোমবার) সকালে ভাইকে বাসার নিচে ছুরিকাঘাত করে আসিফ, সহযোগিতা করে রমজান ও রশিদ।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা