kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

কাবা প্রাঙ্গণে বিদেশিদের জন্য রোবট সেবা, উত্তর দেবে বাংলাসহ ১১ ভাষায়

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ নভেম্বর, ২০২১ ১৪:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাবা প্রাঙ্গণে বিদেশিদের জন্য রোবট সেবা, উত্তর দেবে বাংলাসহ ১১ ভাষায়

মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারামে মুসল্লিদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর নানা ধরনের সেবা দেওয়া হচ্ছে। এখন মুসল্লিদের নানা প্রশ্নের উত্তর সেবা দিতে ব্যবহৃত হচ্ছে টাচ স্কিন রোবট। সৌদি বার্তা সংস্থার বরাতে আরব নিউজ এ তথ্য জানায়।

চার চাকার অত্যাধুনিক রোবট মুসল্লিদের ওমরাহ পালন, ইসলাম বিষয়ক জিজ্ঞাসার জবাবসহ ইসলামী পণ্ডিতদের সঙ্গে কথা বলার স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা করেছে। বিদেশি ওমরাযাত্রীদের জন্য বিশ্বের ১১ ভাষায় তাৎক্ষণিক অনুবাদ সেবাও দিয়ে যাচ্ছে অত্যাধুনিক এ রোবট।

বিশ্বের ১১ ভাষায় মুসল্লিদের সেবা দেবে রিমোট কন্ট্রোল রোবট। আরবি, ইংরেজি, ফ্রেঞ্চ, রুশ, ফার্সি, তার্কিশ, চাইনিজ, বাংলা ও হাউসাসহ মোট ১১ ভাষায় ইসলামী বিষয়ে নানা ধরনের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে মুসল্লিদের সহায়তা করবে।

২১ ইঞ্চির টাচস্ক্রিনের রোবটের সাহায্যে মুসল্লিরা যেকোনো উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে করণীয়, নানা ধরনের দিকনির্দেশনা ও মতপ্রকাশে সহায়তা পাবে।  স্মার্ট স্টপেজ সিস্টেম অনুসরণ করে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির রোবটটি সহজেই এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলাফেরা করতে পারে। 

‘আল মাকরা আল হারামাইন’ সেবার মাধ্যমে মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদের হাফিজদের মাধ্যমে কোরআন পাঠদান করা হয়। এর মাধ্যমে ভালোভাবে কোরআন পাঠ শিখতে আগ্রহী নানা দেশের মুসলিম ও পবিত্র মসজিদুল হারামে আগত মুসল্লিরা কোরআন শিখতে পারে। সহজ পদ্ধতিতে কোরআন পাঠে দক্ষতা অর্জন করে সার্টিফিকেট লাভ করা যায়। 

মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারাম থেকে পরিচালিত দূরশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বের পবিত্র কোরআন ছয় ভাষায় পাঠদান করা হয়। পবিত্র দুই মসজিদের জেনারেল প্রেসিডেন্সি বিভাগের তত্ত্বাবধানে এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য স্মার্ট কোরআন ও ই-ডিভাইসও আছে। ফলে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীরাও ব্রেইইল পদ্ধতিতে পবিত্র কোরআন পড়তে পারেন। 

এর আগে মুসল্লিদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় গুরুত্বারোপ থেকে করোনা সংক্রমণ রোধে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির রোবটের মাধ্যমে মক্কা ও মদিনার পবিত্র দুই মসজিদে জমজম পানি বিতরণ করা হয়েছে। মসজিদুল হারামের ওমরাহযাত্রী ও মুসল্লিরা খুব সহজেই রোবটের চলন্ত যান থেকে জমজম পানির বোতল সংগ্রহণ করতে পারবেন। তা সবার আশাপাশ দিয়ে পানির বোতল নিয়ে চলাফেরা করে। 

তাছাড়া পবিত্র মসজিদুল হারামে জীবাণুমুক্ত রাখতে ১০টি অত্যাধুনিক রোবট চালু করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। করোনা সংক্রমণ রোধে স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র ব্যবহারের সাহায্যে মুসল্লিদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া হয়। অত্যাধুনকি এ রোবটের সাহায্যে একাধারে ৫-৮ ঘণ্টা জীবাণুমুক্ত রাখার কাজ করা যাবে।

সূত্র : আরব নিউজ



সাতদিনের সেরা