kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

প্রথম হিজাবি পুলিশ অফিসার যে ফিলিস্তিনি নারী

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ অক্টোবর, ২০২১ ১৩:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রথম হিজাবি পুলিশ অফিসার যে ফিলিস্তিনি নারী

বার্টলেট পুলিশ বিভাগের প্রথম হিজাবি অফিসার মাহা আয়েশ।

যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশে যোগ দিয়েছেন ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত এক আমেরিকান মুসলিম নারী। ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের বার্টলেট পুলিশ বিভাগের প্রথম মুসলিম ও প্রথম হিজাবি পুলিশ অফিসার হিসেবে মাহা আয়েশ দায়িত্ব পালন করছেন। 

ডেইলি হ্যারাল্ডের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, লোমবার্ডের বাসিন্দা আয়েশ প্রথা ভেঙে হিজাব পরেই পুলিশের দায়িত্ব পালন করছেন। এর আগে তিনি ফরেনসিক থেরাপিস্ট  কেনে কাউন্টি জেলে বন্দিদের মূল্যায়নকারী ও কিশোর অপরাধীদের বিচারে লিয়াঁজো হিসেবে কাজ করেন। 

৩১ বছর বয়সী আয়েশ বলেন, ‘আমি ইলিনয়ের প্রথম হিজাবি অফিসার। আমার বড় অনুপ্রেরণার মধ্যে ছিল আমি সত্যিই সাংস্কৃতিক বাধাকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পেরেছি। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আমরা এমন এক ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে এসেছি, যার সঙ্গে মানুষ এ ধরনের কাজে অভ্যস্ত নয়। আমি আমার সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ দিয়ে ভিন্নতা দেখাতে চাই যে আমার মতো অনেকেই মানুষের সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করে।’ 

যুক্তরাষ্ট্রে হিজাবি পুলিশ অফিসার সাধারণত দেখা যায় না। তবে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে মুসলিম অফিসারের সংখ্যা একেবারেই কম নয়। তাদের মধ্যে অনেক হিজাবি নারী অফিসারও আছেন। সম্প্রতি অনেক মুসলিম নারী পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন। তা ছাড়া অনেক দেশেই হিজাব নারী পুলিশের ইউনিফর্মের অংশে পরিণত হয়েছে। 

আয়েশ জানান, একজন পুলিশ সদস্য হিসেবে তিনি শুধু মুসলিম জনগোষ্ঠীকে নয়, বরং সাংস্কৃতিক পরিষেবা প্রদান করে পুলিশ বিভাগকে তিনি নানাভাবে সহায়তা করবেন। সেখানকার মুসলিম নারীদের তিনি দেখাতে চান যে তারাও এটা করতে পারে, তারাও এসব বাধার দেয়াল ভেঙে ফেলতে পারেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বার্টলেট অঙ্গরাজ্যে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী ও অভিবাসী জনসংখ্যার হার ক্রমাগত বাড়ছে। বর্তমানে সেখানে শতকরা ১৬ ভাগ এশিয়ান এবং প্রায় ১৩ লাতিন জনগোষ্ঠী বসবাস করছে।

সূত্র : ডেইলি হ্যারাল্ড।



সাতদিনের সেরা