kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৮। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ২০ সফর ১৪৪৩

যে কারণে পবিত্র কাবার কালো গিলাফ ওপরে তোলা হয়

মুহাম্মাদ হেদায়াতুল্লাহ   

২৯ জুন, ২০২১ ১৫:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যে কারণে পবিত্র কাবার কালো গিলাফ ওপরে তোলা হয়

প্রতি বছর হজের সময় পবিত্র মসজিদুল হারামে বেশ কিছু পরিবর্তন আসে। এর অন্যতম হলো, পবিত্র কাবা গৃহের কালো গিলাফ তিন মিটার ওপরে উঠিয়ে রাখা হয়। এর বদলে ইহরামের কাপড়ের মতো একটি শুভ্র কাপড় ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। পবিত্র হজ শুরুর কিছু সময় আগে গিলাফ এভাবে তুলে দেওয়া হয়। কিন্তু কী কারণে প্রতি বছর কাবার গিলাফ তোলা হয়, তা অনেকের অজানা।

কাবার গিলাফ উপরে উঠিয়ে রাখার কারণ : প্রতি বছর হজে অসংখ্য মানুষের আগমন হয়। ইসলামের সূচনাকাল থেকে হজের সময় কাবার গিলাফ সুরক্ষার জন্য উপর দিকে তিন মিটার তোলার রীতি চলে আসছে। হজের প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যেও যেন কেউ গিলাফের কোনো অংশ স্পর্শ করে নষ্ট না করে মূলত এই উদ্দেশ্যেই গিলাফের কাপড় তোলা হয়।

তাছাড়া গিলাফ নিচ পর্যন্ত দেখতে পেয়ে হাজিদের অনেকে কাঁচি নিয়ে গিলাফের কিছু অংশ কেটে নেন। তাঁরা গিলাফকে নিজেদের নানা ধরনের উদ্দেশ্য পূরণের মাধ্যম হিসেবে মনে করেন। আবার অনেকে কাবার গিলাফে নিজেদের নাম লেখা শুরু করেন। অথচ তাদের এই ধরনের বিশ্বাসের সঙ্গে বাস্তবতার কোনো মিল নেই। 

 

সাদা কাপড় দেওয়ার রহস্য : কালো গিলাফ উপর দিকে তুলে সেই স্থানে সাদা কাপড় দেওয়া হয়। মূলত এর মাধ্যমে হজের অনানুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়। হজের সময় কাবার দেয়ালে সাদা কাপড় হজের পূর্বপ্রস্তুতির জানান দেয়। হজের শেষ সময় পর্যন্ত সাদা কাপড় থাকে। এরপর আগের মতো পুনরায় কালো গিলাফ নামিয়ে দেওয়া হয়। 

ইতিপূর্বে কালো গিলাফের কাপড় এমনভাবে ঝোলানো হত যে এর নিচ দিকে সাদা কাপড়েরর অংশ প্রকাশ পেত। কিন্তু কয়েক বছর যাবত গিলাফ উপর দিকে ঝুলিয়ে পৃথক আরেকটি সাদা কাপড় লাগানো হয়। 

 

করোনা মহামারির সময়ে কাবার গিলাফ : প্রতি বছর ১৫ জিলকদ বা এর একদিন আগে কিংবা একদিন পর কাবার গিলাফ উপরে তোলা হয়। কারণ এরপর থেকে হাজিদের ভিড় ও তাওয়াফ শুরু হয়। প্রচণ্ড ভিড়েরর কারণে এরপর আর গিলাফ উপরে তোলার কাজ সুন্দরভাবে আঞ্জাম অসম্ভব হয়ে পড়ে। 

কিন্তু এই বছর সৌদিতে অবস্থানরত মাত্র ৬০ হাজার লোক হজে অংশগ্রহণ করবেন। তাই ভিড় কম হওয়াতে এই বছর ২০ জিলকদ (৩০ জুন) কাবার গিলাফ উপরে তোলা হবে। 

করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর ২০২০ সালে মাত্র হাজার লোক হজ পালন করেন। তখন পবিত্র কাবা ঘরের চতুর্পাশে বেরিকেড দেওয়া হয়। যেন কেউ কাবার ঘর, হাজরে আসওয়াদ বা গিলাফের কাপড়সহ কোনো কিছু স্পর্শ করতে না পারেন। 



সাতদিনের সেরা