kalerkantho

শনিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৪ রজব ১৪৪২

ধর্মীয় সম্প্রীতির অনুপম নিদর্শন

চেচনিয়ায় একই ভবনে চার্চ ও মসজিদ

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৬:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চেচনিয়ায় একই ভবনে চার্চ ও মসজিদ

চার্চ ও মসজিদ কমপ্লেক্স, রসগভার্দিয়া চেচনিয়া।

চেচনিয়ার রসগভার্দিয়া শহরে প্রথমবারের মতো চার্চ ও মসজিদ নিয়ে একটি কমপ্লেক্স উদ্বোধন হয়। চেচনিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান রমজান কাদিরাভ ও রাশিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনী প্রধান ভিক্টর জোলোটোভ তা উদ্বোধন করেন। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রসগভার্দিয়া শহরের প্রধান ভিক্টর জোলোটোভ জানান, ‘ঐতিহ্যবাহী মূল্যবোধ ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রাশিয়ার ব্যাপক অবদান আছে। কমপ্লেক্সের উদ্বোধন অতীত ও বর্তমানের মধ্যে অবিচ্ছেদ্য সম্পর্কের প্রতীক। তা ধর্মীয় ও বৈশ্বিক বিশ্বাসের একটি প্রতীক হিসেবে থাকবে।’ 

রাশিয়ার যুবরাজ ড্যানিলের নামে কমপ্লেক্সে অবস্থিত চার্চের নামকরণ করা হয় এবং সোভিয়েত ইউনিয়নের বীরযোদ্ধা মুভলিড ভিসাইটোভের নামে মসজিদের নামকরণ করা হয়। 

রাশিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনী প্রধান ভিক্টর জোলোটোভ বলেন, প্রথম উপাসনাস্থলের উদ্বোধন ধর্মীয় মূল্যবোধ ও আন্তর্জাতিক বিশ্বাসের মধ্যে সংমিশ্রণ তৈরি করে, যা কখনো উপেক্ষা করা যায় না।

রমজান কাদিরাভ বলেন, কমপ্লেক্সের উদ্বোধন ইসলাম ও খ্রিস্টধর্মের একতাকেই প্রকাশ করে। তা ছাড়া এর মাধ্যমে অন্যান্য জাতির সঙ্গে রুশ জাতির সংহতিও প্রকাশ করে।

চার্চ ও মসজিদের মাধ্যমে দেশের প্রথম ঐতিহাসিক কমপ্লেক্স বিনির্মাণের গুরুত্ব তুলে ধরে চেচনিয়ার প্রেসিডেন্ট কাদিরাভ বলেন, ‘ইসলাম ও খ্রিস্টধর্ম ভালোবাসা ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের শিক্ষা দেয়। কেউ তাদের মধ্যে ঘৃণা তৈরি করতে পারবে না।’

উভয় ধর্মাবলম্বীদের উপাসনাস্থল আয়তেন একই বরারব। উপাসনাস্থলের উভয়টিতে দুই শয়ের মতো লোক একসঙ্গে সারিবদ্ধভাবে অবস্থান করতে পারে। 

রাশিয়ার আহমদ কাদিরাভ পাবলিক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ইসলাম ও খ্রিস্টধর্মের উপাসনাস্থল হিসেবে এই কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়। গত বছর এপ্রিল মাসে এই কমপ্লেক্সের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল। 

সূত্র : দ্য রাশিয়া ইসলামিক ওয়ার্ল্ড স্ট্র্যাটেজিক ভিশন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা