kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

পাসপোর্ট ও অন্যান্য সরকারি নথিপত্রে

জন্মস্থান জেরুজালেমের বদলে ইসরায়েল লেখার অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ১২:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জন্মস্থান জেরুজালেমের বদলে ইসরায়েল লেখার অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

জেরুজালেমের জন্মগ্রহণ করা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা পাসপোর্ট ও অন্যান্য সরকারি নথিপত্রে নিজেদের জন্মস্থান হিসেবে ইসরায়েল লেখার অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর নিশ্চিত করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

বিবৃতিতে পম্পেও বলেন, জেরুজালেমে জন্মগ্রহণ করা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা জন্মস্থান হিসেবে ইসরায়েল উল্লেখ করতে পারবে। তাছাড়া আবেদনকারীরা কনস্যুলা সংশ্লিষ্ট যেকোনো ডকুমেন্টে জন্মস্থান হিসেবে জেরুজালেম বা ইসরায়েল উল্লেখ করার অনুরোধ করতে পারবে।’

পাসপোর্টে দ্বন্দ্ব-সংঘাত চলা দেশের নাম আমেরিকা উল্লেখ না করায় দেশগুলোর নাগরিকরা নানা সময় সমস্যায় পড়ত। ২০১৭ সালে আমেরিকা জেরুজালেমকে ইসরায়েলের ঘোষণা দেয় এবং তেল আবিব থেকে জেরুজালেম দূতাবাস স্থানান্তর করে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘জন্মস্থানের তালিকায় ইসরায়েল, গাজা উপত্যাকা, গোলান ভূমি, জেরুজালেম ও পশ্চিম তীর বিষয়ক নির্দেশনা অপরিবর্তীত থাকবে।’

জেরুজালেমে জন্মগ্রহণ করা আমেরিকার নাগরিকরা কনস্যূলার সেবা পেতে নিজেদের জন্মস্থান নির্ধারণ করতে পারে না তাদের জন্মস্থান হিসেবে ইসরায়েল উল্লেখ করা যাবে।

পম্পেও ঘোষিত পাসপোর্ট সংক্রান্ত নতুন নির্দেশনা মতে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হলো। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ঘোষিত মধ্যপ্রাচ্য সংঘাত সমাধানকে প্রত্যাখ্যান করেছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ। ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষসহ বিশ্বনেতারা ইসরায়েল-ফিলিস্তিন দ্বিরাষ্ট্রীয় আলোচনার মাধ্যমে পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে স্বাধীন ফিলিস্তিনের স্বীকৃতির দাবী করে আসছে।

সূত্র : আনাদোলু এজেন্সি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা