kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

ব্যক্তিত্ব

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

হেনরিক ইবসেন

নাট্যকার, কবি ও নাট্যপরিচালক হেনরিক জোহান ইবসেনের জন্ম নরওয়েতে ২০ মার্চ ১৮২৮ সালে। তাঁর বাবা নুড ইবসেন ও মা ম্যারিচেন অ্যাটেনবার্গ। জন্মের কিছুদিন পরেই তাঁর পরিবারের আর্থিক অবস্থার অবনতি ঘটে। তাঁর মা দুঃখ থেকে বাঁচার আশায় ধর্মে মনোনিবেশ করেন এবং বাবা বিষণ্নতার শিকার হন। এ কারণে তাঁর রচিত চরিত্রগুলোর মধ্যে মা-বাবার ছায়া লক্ষ করা যায়। ১৫ বছর বয়সে তিনি ঘর ছাড়েন। ফার্মাসিস্ট হওয়ার মানসে তিনি ছোট্ট শহর গ্রিমস্টাডে আস্তানা গাড়েন এবং এখানেই তাঁর নাটক লেখার সূত্রপাত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির উদ্দেশ্যে তিনি অসলোতে যান; কিন্তু পরে পড়ার চিন্তা বাদ দিয়ে নাটক রচনায় আত্মনিয়োগ করেন। বার্গেনের নরওয়েজীয় নাট্যগোষ্ঠীতে তিনি পরবর্তী কয়েক বছর চাকরি করেন। এখানে তিনি ১৪৫টিরও বেশি নাটকে নাট্যকার, পরিচালক ও প্রযোজক হিসেবে কাজ করেন। তিনি একজন স্বনামধন্য নরওয়েজীয় নাট্যকার, যিনি আধুনিক বাস্তবতাবাদী নাটকের সূত্রপাত করেছেন। তাঁকে সম্মান করে বলা হয় ‘আধুনিক নাটকের জনক’। তিনি আধুনিক মঞ্চনাটক প্রতিষ্ঠা করেছেন সামাজিক মূল্যবোধের বিভিন্ন উপাদানকে সমালোচকের দৃষ্টিতে পর্যালোচনা করে। ভিক্টোরীয় যুগে নাটকগুলো শুধু সামাজিক মূল্যবোধ সম্পর্কে কথা বলবে—এমন ভাবা হতো; যেখানে সত্য সর্বদাই কালো শক্তির বিরুদ্ধে জয়লাভ করবে এবং সব নাটকই তৎকালীন সামাজিক মূল্যবোধের গুণগান গেয়ে শেষ হবে। কিন্তু তিনি এ ধারার বিপক্ষে গিয়ে নাটকের সমাপ্তিতে বৈচিত্র্য আনেন এবং নতুন ধারার জন্ম দেন। ১৯০৬ সালের ২৩ মে তিনি মারা যান।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা