kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

ব্যক্তিত্ব

১০ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

প্রমথনাথ বিশী

সাহিত্যিক ও গবেষক প্রমথনাথ বিশীর জন্ম নাটোরের জোয়াড়ি গ্রামে ১৯০১ সালের ১১ জুন। তাঁর বাবার নাম নলিনীনাথ বিশী। ১৯১০ সালে শান্তিনিকেতনের ব্রহ্ম বিদ্যালয়ে তাঁর শিক্ষাজীবন শুরু হয়। সেখানে তিনি রবীন্দ্রনাথের সান্নিধ্য লাভ করেন। মেধা, অধ্যয়ননিষ্ঠা ও কবিপ্রতিভার জন্য রবীন্দ্রনাথ তাঁকে স্নেহ করতেন। তাঁর কাছে তিনি অভিনয় শেখেন এবং কয়েকটি যাত্রাপালায় অভিনয়ও করেন। ১৯১৯ সালে শান্তিনিকেতন থেকে ম্যাট্রিক পাস করে সেখানেই শিক্ষকতা শুরু করেন এবং ১৯২৭ সালে প্রাইভেট পরীক্ষার্থী হিসেবে আইএ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ১৯২৯ সালে রাজশাহী কলেজ থেকে ইংরেজিতে অনার্সসহ বিএ এবং ১৯৩২ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় এমএ ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৩৬ সালে তিনি রিপন কলেজে অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৫০ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে যোগ দেন এবং রবীন্দ্র অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান হয়ে ১৯৭১ সালে অবসরগ্রহণ করেন। কিছুদিন তিনি আনন্দবাজার পত্রিকায় কাজ করেন এবং কংগ্রেসের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা ও রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত হন। সৃজনশীল লেখক ও মননশীল গবেষক হিসেবে তাঁর খ্যাতি আছে। গবেষণার ক্ষেত্রে প্রধানত রবীন্দ্র বিশেষজ্ঞ হিসেবে তিনি পরিচিতি লাভ করেন। গবেষণাগ্রন্থ ছাড়াও তিনি গল্প, উপন্যাস, নাটক, প্রবন্ধ, কবিতা ও ব্যঙ্গ রচনার ক্ষেত্রেও প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন। ‘কেরী সাহেবের মুন্সী’, ‘লালকেল্লা’, ‘ব্যক্তি ও ব্যক্তিত্ব’ তাঁর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ। রবীন্দ্র পুরস্কার, বিদ্যাসাগর স্মৃতি পুরস্কার, জগত্তারিণী পুরস্কারসহ নানা পুরস্কার লাভ করেন তিনি। ১৯৮৫ সালের ১০ মে তিনি মারা যান।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা