kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

প্রতিরোধে পুরুষের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাম্প্রতিককালে দেশে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েছে ব্যাপক মাত্রায়। প্রতিদিন গণমাধ্যমগুলোতে ধর্ষণের খবর আমরা দেখছি বা শুনছি। ধর্ষণের পর হত্যাও করা হচ্ছে। নারী ও শিশুর ওপর যৌন নির্যাতন বাড়ছে। মানুষ বিচার পাচ্ছে না। এটা সমাজের জন্য খারাপ বার্তা দিচ্ছে। দেশে অনেক আইন থাকলেও প্রয়োগ সঠিকভাবে হচ্ছে না। ফলে অপরাধীদের সাহস দিন দিন বাড়ছে। সময়মতো যদি অন্যায়ের প্রতিবাদ করা না হয়, এর ফল গোটা জাতিকে ভোগ করতে হয়। অন্যায়-অনাচার দেখা দিলে ঐক্যবদ্ধভাবে তা প্রতিহত করা আবশ্যক। কিন্তু আমাদের সমাজে এখন অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে অনেকে আগ্রহ দেখায় না। অপরাধ নির্মূল করতে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করার কোনো বিকল্প নেই।

ধর্ষণ, নির্যাতন বা নারীর প্রতি অপমানমূলক কর্মকাণ্ড যেখানেই হচ্ছে, সেটা ঘটছে আশপাশের পুরুষের প্রতিবাদের অভাবে। পাবলিক বাসে একজন অপরাধ করে পার পেয়ে যায় পাশের মানুষের নীরবতার কারণে। কেউ নীরব থাকে হেনস্তা হওয়ার ভয়ে; কেউ বা লজ্জায়, রাগে, দুঃখে চুপ থাকে। এখানে প্রয়োজন মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তনের। ধর্ষণ প্রতিরোধে পুরুষসমাজকে সম্পৃক্ত করে পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

এ কে এম আলমগীর

ও আর নিজাম রোড, চট্টগ্রাম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা