kalerkantho

ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত

৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব সময় সাহসী পদক্ষেপ নেন। কোটা বাতিলের সিদ্ধান্তও তাঁর সাহসী পদক্ষেপ। মেধার জয় হলে দেশের জয় হবে। এত দিন কোটা বিদ্যমান থাকায় দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে। অন্যদিকে মেধাবীদের মনে ক্ষোভের জন্ম হয়েছে। তরুণদের যৌক্তিক দাবির প্রতি একাত্মতা ঘোষণা করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। চাকরিতে মেধাবীরা নিয়োগ পেলে এবং স্বাধীনভাবে কাজ করার সুবিধা পেলে তারা দেশের চিত্রপট বদলে দেবে। বাংলাদেশকে বিশ্ব উন্নয়নের রোল মডেল বানাবে। বিশ্বের যেখানেই মেধাবীরা কাজ করার সুযোগ পেয়েছে, সেখানেই তারা মাটিকে স্বর্ণ বানিয়েছে, যা কোটার সুযোগ গ্রহণকারী ব্যক্তিরা করে দেখাতে পারেনি। তাই কোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত শতভাগ যৌক্তিক। কোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত যেন পরিবর্তন করা না হয়। মহান মুক্তিযুদ্ধে যাঁরা অংশগ্রহণ করেছেন, তাঁদের প্রতি আজীবন অন্তর থেকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা থাকবে। কিন্তু অসংখ্য মানুষ মুক্তিযোদ্ধা সেজে বিভিন্ন উপায়ে মুক্তিযোদ্ধার সনদ সংগ্রহ করে সুবিধা নিয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাপ্য সম্মান ছদ্মবেশী মুক্তিযোদ্ধারা ভোগ করুক দেশের মানুষ তা চায় না। অন্যদিকে বিভিন্ন অনগ্রসর শ্রেণি ও প্রতিবন্ধীরা যেন সুবিধাবঞ্চিত না হয় সে জন্য ব্যবস্থা নিতে হবে।

আব্দুল্লাহ মুহাম্মাদ যুবায়ের

কল্যাণপুর, ঢাকা

মন্তব্য