kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

প্রেমের ফাঁদে ২৪ বিয়ে, পুলিশের জালে আটক!

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১১:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রেমের ফাঁদে ২৪ বিয়ে, পুলিশের জালে আটক!

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে একে একে ২৪টি বিয়ে করে পুলিশের জালে ধরা পড়েছেন আশাবুল মোল্লা নামের এক যুবক। জানা গেছে, কোনো এলাকাতেই বেশি দিন থাকতেন না ওই যুবক। প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ে করার পর নববধূর গয়না-টাকা নিয়ে গা ঢাকা দিতেন আশাবুল।

প্রতারক ওই যুবক গাড়িচালক পরিচয় দিয়ে ঘর ভাড়া নিয়ে নিজেকে অনাথ বলে সহানুভূতি নিতেন।

বিজ্ঞাপন

পরে সেখানে স্থানীয় কোনো কিশোরীকে ভালবাসার ফাঁদে ফেলে বিয়ে করতেন। কিছু দিন শ্বশুরবাড়িতে থাকার পর হঠাৎই গয়না নিয়ে পালিয়ে যেতেন। আবারো নতুন এলাকায় গিয়ে ভুয়া পরিচয়ে আধার কার্ড তৈরি করে নেমে পড়তেন ফের বিয়ে করতে।

এভাবে ২৪টি বিয়ে করার পর পুলিশের জালে ধরা পড়লেন ঠগ বর আশাবুল মোল্লা বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। প্রতারিত এক তরুণীর লিখিত অভিযোগের পর পুলিশ তাকে আটক করে। ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ, তাদের পরিবারের জমানো টাকা ও স্বর্ণের গয়না নিয়ে চম্পট দিয়েছে‌ন তার স্বামী। একাধিক মোবাইল নম্বরে যোগাযোগের চেষ্টা করেও যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

এর পর থেকেই ওই যুবকের খোঁজ শুরু করে পুলিশ। অবশেষে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে উত্তর ২৪ পরগনার দত্তপুকুর থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে সাগরদিঘি থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। গ্রেপ্তারের সময় তার কাছে একাধিক সিম কার্ড, ভুয়া কাগজপত্র ও কিছু নগদ টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ।

তদন্ত নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ে করার পর নববধূর গয়না-টাকা নিয়ে চম্পট দিতেন এলাকা থেকে। ভুয়াপরিচয়পত্র দিয়ে সিম কার্ড নেওয়াতে তার অবস্থান সম্পর্কে জানতে পুলিশকে নাস্তানাবুদ হতে হয়। গ্রেপ্তারের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পেরেছে, ২৪ জন নারীকে ইতিমধ্যে বিয়েও করেছেন আশাবুল।

সূত্র : আনন্দবাজার



সাতদিনের সেরা