kalerkantho

শুক্রবার । ১ জুলাই ২০২২ । ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ । ১ জিলহজ ১৪৪৩

হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক ইয়োগা দিবস পালিত

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ জুন, ২০২২ ১৩:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক ইয়োগা দিবস পালিত

ঢাকার অদূরে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৮ম আন্তর্জাতিক ইয়োগা দিবস উদযাপিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২১জুন) বিকাল ৩টায় এ উপলক্ষে ইয়োগার তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ইয়োগার কলাকৌশল প্রদর্শন করেন শিক্ষার্থীরা।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান দুলাল।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, শরীর ও মন সুস্থ রাখতে ইয়োগা’র চর্চাকে সব জায়গায় ছড়িয়ে দিতে হবে। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী চান সুস্থ সবল ও মননশীল জাতি হিসেবে আমরা বিশ্বের বুকে নিজেদের মর্যাদা তুলে ধরি। এ ক্ষেত্রে ইয়োগা আমাদের জন্য চমৎকার উদাহরণ হতে পারে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা, হামদর্দ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চিফ মোতাওয়াল্লী ড. হাকীম মো. ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া; জাতীয় সংসদ সদস্য ও হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের অন্যতম সদস্য অধ্যাপক ড. প্রাণ গোপাল দত্ত; বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ভাইস-চেয়ারম্যান, হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের ইউনানী আয়ুর্বেদিক অনুষদের ডিন, জাতীয় অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ খান, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের অন্যতম সদস্য অবসরপ্রাপ্ত লে. জেনারেল মো. জহিরুল আলম; ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনের সেকেন্ড সেক্রেটারি (এডুকেশন) রাজেন্দর সিংহ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আমানুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ভারতের প্রখ্যাত চিকিৎসক, হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের একাডেমিক ইউনানী চেয়ার অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন কাজমি। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান, মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিনহাজুল ইসলাম, গজারিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়াউল ইসলাম, হামদর্দের পরিচালক (উৎপাদন) বশির আহম্মেদ, পরিচালক (বিপণন) মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, পরিচালক (তথ্য ও গণসংযোগ) আমিরুল মোমেনীন মানিক।

ইয়োগা প্রদর্শনী শেষে ক্যাম্পাসে ইয়োগা ও ফিটনেস ক্লাবের উদ্বোধন করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। এরপর তিনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বৃক্ষরোপণ করেন এবং হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখেন।



সাতদিনের সেরা