kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

সাপকে বাঁচাতেন, বানিয়েছিলেন বন্ধু; বিশ্বাস ঘাতকতা করলো সেই সাপ

অনলাইন ডেস্ক   

২২ অক্টোবর, ২০২১ ১৬:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাপকে বাঁচাতেন, বানিয়েছিলেন বন্ধু; বিশ্বাস ঘাতকতা করলো সেই সাপ

বিভিন্ন সময় সাপকে বাঁচাতেন বঙ্কিম

সাপকে বাঁচাতেন। যেখানে সাপের বিপদ ছুটে যেতেন বঙ্কিম। স্নেক সেভার হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। তৃষ্ণার্ত সাপকে পানি খাওয়াতেন, চোখে চোখ রেখে কথা বলতেন। যেন হয়ে গিয়েছিলেন সাপের অকৃত্রিম বন্ধু। কিন্তু সে সমীকরণ মিথ্যে করে দিলো একটি সাপ।   

ভারতের মালদহ জেলা, অর্থাৎ আমাদের চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নওগাঁ বা দিনাজপুর সংলগ্ন ভারতের এই জেলায় বসবাস করেন বঙ্কিম। বঙ্কিমের পুরো নাম বঙ্কিম স্বর্ণকার (৩০)।

বাড়ি মালদহ'র ইংরেজবাজার থানার শোভানগরের। করো বাড়িতে বিষধর সাপ দেখা গেলে প্রথমেই ডাক পড়তো বঙ্কিমের। তারপর সে সাপ উদ্ধার করে বন অধিদপ্তরের হাতে তুলে দিতেন বঙ্কিম।

অন্যান্য দিনের মতোই ঠিক গত মঙ্গলবারও পুখুরিয়া এলাকায় বিষধর সাপ ধরতে যাযন বঙ্কিম। সূত্রের খবর অনুযায়ী সেখানেই সাপের কামড়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সাপটি ধরেনও তিনি। একটি ভিডিওতে দেখা যায় লেজ ধরে সাপটিকে তুলে ধরতেই সাপটি কামড়ে ধরে বঙ্কিমের হাঁটুতে। এমনভাবে কামড়ে দিয়ে ধরেছিল যে বঙ্কিম দাঁড়িয়ে লেজ ধরে টানছেন, কিন্তু সাপ কোনোভাবেই ছাড়তে চাইছে না। বিষদাঁত বসিয়ে রেখেছে। 

সীমান্তবর্তী বাংলাদেশ অঞ্চলের মানুষের কাছেও এই খবর পৌঁছে যায়। তারা ভিডিওটি দেদারসে শেয়ার করছেন। ভারতীয় একটি গণমাধ্যমও বিষয়টি নিশ্চিত করে বলছে, সেখান থেকে বঙ্কিমকে দ্রুত উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্র ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে পরে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। কিন্তু না, বঙ্কিমকে বাঁচানো যায়নি। সেখানেই মারা যান। 

বঙ্কিমের মৃত্যুতে সীমান্তবর্তী ওই এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সেই ভিডিও... 



সাতদিনের সেরা