kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

তিনমাসে কলম্বিয়া থেকে টঙ্গীতে যেভাবে এলো অজগরটি

শাহীন আকন্দ, গাজীপুর   

২১ জুন, ২০২১ ১৩:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তিনমাসে কলম্বিয়া থেকে টঙ্গীতে যেভাবে এলো অজগরটি

সুদূর দক্ষিণ আমেরিকার কলম্বিয়া থেকে গাজীপুরের টঙ্গীর একটি ইস্পাত কারখানায় আনা হয়েছিল কাঁচামাল। সেখানে মাল আনলোড করতে গিয়ে বেরিয়ে আসে একটি অজগর। তা দেখে কারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চক্ষু চড়কগাছ। পরে ঘটনাটি জানানো হয় বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটকে। তারা কারখানা থেকে অজগরটি উদ্ধার করে গতকাল রবিবার বিকেলে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে পাঠিয়েছে।

বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিদর্শক অসিম মল্লিক জানিয়েছেন, অজগরটি বোয়া কন্সট্রিকটর জাতের। এটি লম্বায় প্রায় ছয় ফুট আর ওজন চার কেজি। বয়স আনুমানিক সাত মাস। দীর্ঘদিন না খেয়ে থাকায় অজগরটি বেশ দুর্বল ছিল। এ ছাড়া শরীরে একটি আঘাতও রয়েছে।

অসিম মল্লিক জানান, টঙ্গীর আনোয়ার ইস্পাত কারখানা কর্তৃপক্ষ বরাবরের মতোই দেশের বাইরে থেকে কিছু কাঁচামাল আমদানি করে। তা কলম্বিয়া থেকে জাহাজযোগে প্রায় তিন মাস আগে রওনা হয়। গত শনিবার কনটেইনার আনোয়ার ইস্পাতের টঙ্গীর ওয়্যার হাউসে পৌঁছায়। মালগুলো আনলোড করার সময় কাঁচামালের সঙ্গে একটি অজগর চোখে পড়ে। তা দেখে তাত্ক্ষণিক কারখানার কর্মকর্তাদের জানায় শ্রমিকরা। পরে কারখানা ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মো. মিজানুর রহমান ঘটনাটি বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটকে জানান।

অসিম মল্লিক আরো জানান, ঘটনা জেনে ওই দিনই কারখানা থেকে অজগরটি উদ্ধার করেন তাঁরা। পরে গতকাল বিকেলে এটিকে তাঁরা গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে পাঠান।

জানা যায়, কলম্বিয়া উপকূলীয় অঞ্চলে এ ধরনের অজগর পাওয়া যায়। এটি অজগরের আরেকটা প্রজাতি। হয়তো সেখান থেকে কোনোভাবে এটি কনটেইনারের কাঁচামালের ভেতর ঢুকে পড়ে। তিন মাস ধরে সেখানে কিছু না খেয়ে অবস্থান করছিল। ফলে দুর্বল হয়ে পড়েছিল অজগরটি।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান বলেন, ‘অজগরটিকে পার্কের ভেতর কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।’



সাতদিনের সেরা