kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ বৈশাখ ১৪২৮। ১১ মে ২০২১। ২৮ রমজান ১৪৪২

৫ বছর বয়সে মা হয়েছিল শিশু লিনা, তোলপাড় পড়ে যায় গোটা বিশ্বে

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ এপ্রিল, ২০২১ ১৫:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৫ বছর বয়সে মা হয়েছিল শিশু লিনা, তোলপাড় পড়ে যায় গোটা বিশ্বে

গোটা বিশ্বের ইতিহাস জুড়েই এমন কিছু ঘটনা রয়েছে যা বিশ্বাসযোগ্য  না। এমনই এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে পেরুর বাসিন্দা লিনা মোদিনার সাথে। বিশ্বের ইতিহাসে সর্বকণিষ্ঠ বয়সে মা হওয়ার রেকর্ড করেছিলেন তিনি। অবিশ্বাস্য হলেও লিনা যখন প্রথম সন্তানের জন্ম দেন তখন তার বয়স ছিলো মাত্র পাঁচ বছর।

১৯৩৩ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর পেরুর ট্রিকাপো নামে এক ছোটো শহরে জন্ম হয়েছিল লিনার। লিনার যখন পাঁচ বছর বয়স, তখন তাঁর বাবা-মা লক্ষ্য করেছিলেন তার পেট হঠাৎ ফুলতে শুরু করেছে। তারা প্রথমে ভেবেছিলেন লিনার সম্ভবত পেটের কোনও রোগ হয়েছে। লিনা চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার পর পরীক্ষা নিরাক্ষী করা হয়। কিন্তু কিছুতেই কোনো রোগ ধরা পড়ে না। অবশেষে ধরা পড়ে লিনা সাত মাসের গর্ভবতী। এরপর লিনাকে হাসপাতালে ভর্তি করে এই বিষয়ে নিশ্চিত হয় একদল চিকিৎসক।

চিকিৎসকের সঙ্গে পুত্রসহ লিনা

১৯৩৯ সালের ১৪ মে, মাত্র ৫ বছর ৭ মাস ১৭ দিন বয়সে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন লিনা। অস্ত্রোপচার করতে হয়েছিল ডাক্তারদের। লিনা যে পুত্রের জন্ম দিয়েছিলেন সেও সুস্থই ছিল। ঘটনাচক্রে, ওই দিনটি আবার পেরুতে মাতৃ দিবস হিসাবে পালিত হয়। এরপর ১৯৭২ সালে বিবাহ করেছিলেন লিনা। নার্সের কাজ করতেন। আর তার সেই সন্তান জীবিত ছিল ৪০ বছর।

কিন্তু, এত ছোট বয়সে লিনা কীভাবে গর্ভবতী হলো, সেই প্রশ্নের উত্তর আজও পাওয়া যায়নি। মনে করা হয়, সম্ভবত পরিবারের বা প্রতিবেশীদের কেউ তাকে ধর্ষণ করেছিল। কিন্তু, ৫ বছর বয়সে কীভাবে সন্তান ধারণ সম্ভব তা রহস্যই থেকে গিয়েছে। সাধারণ চিকিৎসা বিজ্ঞান বলে, মেয়েরা বয়সন্ধিতে না পৌঁছালে তাদের শরীরে সন্তান ধারণের প্রয়োজনীয় হরমোনই তৈরি হয় না। তাই এই ঘটনাটা ডাক্তারদের কাছে শুধু বিস্ময়কর নয়, অসম্ভব ছিল।

লিনাকে নিয়ে চিকিৎসক মহলে নানা গবেষণা হয়েছে। লা প্রেসি মেডিক্যাল জার্নালে তাকে নিয়ে বহু লেখালেখি হয়। তাতে জানা যায়, ৮ মাস বয়স থেকেই ঋতুস্রাব শুরু হয়ে গিয়েছিল তার। অর্থাৎ তখন থেকেই প্রজনন ক্ষমতা সম্পন্ন ছিল সে। চিকিৎসা বিজ্ঞানে যাকে বলা হয় প্রিকসিয়াস পিউবার্টি, বিরলতম ঘটনা। মস্তিষ্কের যে অংশ থেকে যৌন হরমোন নিঃসৃত হয়, সেই অংশেরই কিছু সমস্যার কারণে এমনটি ঘটে থাকে। 

সূত্র: স্নুপস ডটকম



সাতদিনের সেরা