kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

লকডাউনে গরিবের ঘরে খাদ্য পৌঁছে দেবেন নাফিসা

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:৫৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লকডাউনে গরিবের ঘরে খাদ্য পৌঁছে দেবেন নাফিসা

তরুণীর নাম নফিসা আনজুম খান। ফেসবুকে লিখলেন, 'আগামী ১৪ই এপ্রিল থেকে আমার সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে আমি থাকবো আপনার ঘরে খাবার পৌঁছে দেয়ার দায়িত্বে।৭-১০ দিনের বাজার সামগ্রী বিনামূল্যে পৌঁছে যাবে আপনার ঘরে।'

আকস্মিক এমন ঘোষণায় বিস্মিত না হয়ে উপায় নেই। কোত্থেকে খাবার যোগাড় করে পৌঁছে দেবেন? হ্যাঁ এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে নাফিসার ফেসবুক ঘাঁটলে। তিনি চাহিদা অনুযায়ী খাবারের বিষয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন। সেই অনুযায়ী অনেকেই সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন। নাফিসা সেই খাবার ঘরে ঘরে পৌঁছে দেন।

যেমন নাফিসা ফেসবুকে লিখেছেন, 'আমার পোস্ট দেখে সারা ঢাকা শহর থেকে ৩৩টি বাসা থেকে আলু,পেয়াজ,চাল,চিনি সংগ্রহ করে এনেছি আমি।
আজ ২০০ পরিবারের মাঝে খাবার উপহার বিতরণ শুরু করছি ইনশাআল্লাহ। সারা বাংলাদেশেই ধাপে ধাপে খাদ্য উপহার পৌঁছে যাবে ইনশাআল্লাহ! সময় দিয়ে সাথে থাকবেন আশা করি।'

শুধু ঢাকা নয়। ঢাকার বাইরেও নাফিসার খাবারের গাড়ি পৌঁছে যায়। দুর্যোগ মুহূর্তে অনেকের কাছে নাফিসা ভরসার নাম, আস্থার নাম। একজনের সহায়তা আরেকজনের নিকট পৌঁছে দেওয়ার কাজ নিরলসভাবে করে যাচ্ছেন নাফিসা।

বিগত বছরগুলোতে নাফিসার সহায়তা ছিল অনেকটা প্রকাশ্যে। এবার নাফিসা সহায়তাপ্রাপ্তকে আড়ালে রাখবেন। নাফিসা বলেন, আমি গতবাছর যাদের খাবার দিয়েছি, তাদের অনেকের ছবি তুলেছি। এবার অবশ্য আমি ছবি তুলতে চাই না। তাদের প্রকাশ্যে আনতে চাই না।

নাফিসা বলেন, ‘আমি ৭ জেলায় ২৯টি টিউবওয়েল স্থাপন করতে পেরেছি। খাবারের পানির ব্যবস্থা করেছি। এর পাশাপাশি মাদরাসা থেকে ফোন পাই, কারও কোরআন শরিফ, রেহাল প্রয়োজন, ব্লাকবোর্ড প্রয়োজন। তারপর এমন মসজিদ পেয়েছি যেখানে আজানের মাইক নেই, এসব সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেছি। এমনকি নোয়াখালীর ফেনীতে ১৪ বছর যে গ্রামে নামাজ হয়নি সেখানে মসজিদ করেছি।’

টাঙ্গাইলে খাদ্য নিয়ে নাফিসা

খাবার প্যাকেট করা থেকে নিয়ে পৌঁছে দেয়া পর্যন্ত সব নাফিসাকেই করতে হয়। শুধু তাই নয়,মোবাইলে আসা কল রিসিভ করে, মেসেজ পড়ে কাদের সাহায্য বেশি প্রয়োজন বা কোন এলাকার কতজন তার হিসাবও রাখেন তিনি।

নাফিসা নিজের একটি মোবাইল নম্বর ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। নম্বরের সঙ্গে সেখানে তিনি লিখেছেন ফোন করলে খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে। তবে নম্বরটি অধিকাংশ সময়ই ব্যস্ত থাকে। তবে নাফিসা বলেছেন মেসেজ করে নাম ঠিকানা লিখে পাথিওয়ে দিতে। নাফিসার দেওয়া নম্বরটি হলো 01711085064 

নাফিসা ইউল্যাবের মিডিয়া স্টাডিজ অ্যান্ড জার্নালিজম বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করছেন।



সাতদিনের সেরা