kalerkantho

মঙ্গলবার । ৭ বৈশাখ ১৪২৮। ২০ এপ্রিল ২০২১। ৭ রমজান ১৪৪২

তামিমাকে কিছু বলা মানে আমাকে বলা : নাসির

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:৫৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তামিমাকে কিছু বলা মানে আমাকে বলা : নাসির

সোশ্যাল মিডিয়ায় নাসিরের বিয়ে নিয়ে নানা রকম কথাবার্তা ছড়িয়ে পড়েছে। তাঁর সদ্য বিবাহিতা তামিমা তাম্মির পূর্বের বিবাহিত জীবন সামনে এনে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা রকম কথা বলছেন। এক সংবাদ সম্মেলনে নাসির সোশ্যাল মিডিয়ার এইসব খবর নিয়ে বলেন, মানুষ আমাকে ভালোবাসে, আমি হয়তো জাতীয় দলে খেলি, আমাকে যেমন ভালোবাসে তেমনি গালাগালিও করে। কিন্তু আমার পরিবারের ওপর এইসব প্রতিক্রিয়ার প্রভাব পড়ছে। এটা সবচেয়ে ক্ষতিকর। 

আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর বনানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ক্রিকেটার নাসির। এসময় নাসিরের স্ত্রী তামিমা তাম্মি ও তাঁর আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন। 

নাসির বলেন, 'সোশ্যাল মিডিয়ায় যেসব কথা বলা হচ্ছে এসব হয়তো আমি সহ্য করতে পারছি কিন্তু তামিমা তো সহ্য করতে পারছে না। ও যদি যে কোনো মুহূর্তে রঙ ডিসিশন নেয় তাহলে এর দায়ভার কে নেবে? আর রাকিব সাহেব যেভাবে কথা বলেছে, এভাবে তো বলতে পারেন না। তামিমাকে কিছু বলা মানে আমাকে বলা।' 

ডিভোর্স পেপার ছাড়াই অন্যের স্ত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানা তাম্মির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আজ বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসীমের আদালতে রাকিব হাসান বাদী হয়ে এ মামলা আবেদন করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে ৩০ মার্চের মধ্যে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

সম্প্রতি ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা সুলতানার বিয়ে হয়। এরপর নতুন করে বিতর্ক ওঠে এই ক্রিকেটারকে ঘিরে। তামিমা সুলতানা তাঁর আগের স্বামীকে তালাক না দিয়ে নাসিরকে বিয়ে করেছেন। রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় এমন অভিযোগ তুলে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তামিমার আগের স্বামী রাকিব হাসান। জিডিতে তামিমার সঙ্গে তাঁর দীর্ঘ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন রাকিব। জিডিতে তিনি দাবি করেছেন, তামিমার সঙ্গে তাঁর (রাকিবের) ১১ বছরের সংসার। দুজনের ৮ বছরের একটি মেয়েও আছে। কিন্তু সব ফেলে নাসিরকে বিয়ে করায় থানায় অভিযোগ করেছেন তিনি।

১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে রাজধানীর উত্তরার একটি রেস্তোরাঁয় নাসির ও তামিমার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। নাসিরের স্ত্রী পেশায় কেবিন ক্রু। কাজ করেন বিদেশি একটি এয়ারলাইনসে। বিয়ের অনুষ্ঠানে পরিবারের লোকজন এবং ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজন উপস্থিত ছিলেন। নাসিরের বিয়ের অনুষ্ঠানে অনেক ক্রিকেটারও উপস্থিত ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নাসিরের বিয়ের ছবি ছড়িয়ে পড়ে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা