kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

কুড়িগ্রামে কেয়ারের কর্মশালায় বক্তাদের অভিমত

আগেভাগে ব্যবস্থা নিলে বন্যার ক্ষয়ক্ষতি বহুলাংশে কমানো সম্ভব

অনলাইন ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০২০ ১৭:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগেভাগে ব্যবস্থা নিলে বন্যার ক্ষয়ক্ষতি বহুলাংশে কমানো সম্ভব

সাপোর্টিং ফ্লাড ফোরকাস্ট-বেইসড অ্যাকশন অ্যান্ড লার্নিং ইন বাংলাদেশ (সুফল প্রকল্প) ইউরোপীয়ান সিভিল প্রটেকশন অ্যান্ড হিউমেনিটেরিয়ান এইড অপারেশনস সংক্ষেপে একো-এর অর্থায়নে; কেয়ার বাংলাদেশ, কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এবং ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে এবং রাইমস-এর কারিগরি সহায়তায় বাস্তবায়িত হচ্ছে।

বাস্তবায়নের অভিজ্ঞতা নিয়ে সুফল প্রকল্প আজ বৃহস্পতিবার পূর্বাভাস ভিত্তিক আগাম পদক্ষেপ (এফবিএ) পর্যালোচনা বিষয়ক একটি কর্মশালার আয়োজন করে যাতে মো. আতিকুল হক, মহাপরিচালক- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালাটি উলিপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় যাতে প্রকল্প বাস্তবায়নের অভিজ্ঞতা তুলে ধরা হয়। সেইসাথে স্থানীয় প্রশাসন এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা পরামর্শ ও অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন।

ডিআরআরও, ইউএনও, উপজেলা চেয়ারম্যান, পিআইও, উপজেলা পরিষদ এবং ইউনিয়ন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রতিনিধিগণ, বিশেষায়িত অধিদপ্তরসমূহের প্রতিনিধিগণ (কৃষি, জনস্বাস্থ্য, পশুপালন, সমাজসেবা, নারী ও শিশু) এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রতিনিধি আলোচনায অংশ নেয়।

২০২০ সালের বন্যা মৌসুমে সুফল প্রকল্প কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা এবং জামালপুরে পাইলট আকারে পূর্বাভাস ভিত্তিক আগাম পদক্ষেপ (এফবিএ) বাস্তবায়ন করেছে, যাতে বন্যার পূর্বাভাসের ভিত্তিতে আগাম পদক্ষেপ নেওয়ার মাধ্যমে হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমানো যায়। সুফল জনসাধারণের মাঝে বন্যার পূর্বাভাস প্রচারের জন্য মাইকিং এবং ভয়েস মেসেজের ব্যবস্থা করেছে। পূর্বাভাস পেয়ে বন্যার আগেই মানুষদের নৌকার মাধ্যমে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং থাকার জন্য তাবুর সরঞ্জাম দেওয়া হয়েছে। বন্যার আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে সুফল প্রকল্পের তরফ থেকে প্রয়োজনীয় মেরামত, নলকুপ এবং টয়লেটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেইসাথে বন্যার আগেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির পরামর্শে এবং যৌথ অর্থায়নে বিভিন্ন এলাকায় বাঁশের সাঁকো নির্মাণ, রাস্তার এবং বাঁধের মেরামতের কাজ করে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা