kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৪ জুন ২০২০। ১১ শাওয়াল ১৪৪১

ঠাঁই হয়নি বাড়িতে, নৌকায় কোয়ারেন্টিনে বৃদ্ধ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঠাঁই হয়নি বাড়িতে, নৌকায় কোয়ারেন্টিনে বৃদ্ধ!

করোনায় কাঁপছে বিশ্ব। ভারতেও হানা দিয়েছে এই মারণ ভাইরাস। আতঙ্কে কম বেশি সচেতন হয়েছেন সকলেই। হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন বহু মানুষ। কেউ আবার হাসপাতালে। কিন্তু নৌকায় কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন এক বৃদ্ধ! অদ্ভুত শুনতে লাগলেও এটাই সত্যি। কারণ করোনা আবহে ভাগ্নির বাড়িতে ঠাঁই হয়নি তার। তাই বাধ্য হয়েই এই ব্যবস্থা। যদিও নিয়মিত ভাগ্নির বাড়ি থেকেই আসছে খাবার।

ভারতের নদিয়ার নবদ্বীপ থানার পাবনা পুরের বাসিন্দা ওই বৃদ্ধের নাম নিরাঞ্জন হালদার। সম্প্রতি মালদহের হবিবপুরের বুলবুলচন্ডী এলাকায় ভাগ্নির বাড়িতে যান তিনি। কিন্তু ততক্ষণে করোনা আতঙ্ক জাঁকিয়ে বসেছে রাজ্যবাসীর মনে। তাই ভাগ্নির বাড়িত তো দূরের কথা এলাকাতেও ঠাঁই হয়নি বৃদ্ধের। এরপর গ্রামের বাসিন্দারাই জোর করে তাকে নিয়ে যায় স্থানীয় হাসপাতালে। সেখানে চিকিত্‍সকরা পর্যবেক্ষণের পর জানান যে, ১৪ দিন আলাদা অর্থাত্‍ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাকে। কিন্তু গ্রামে তো কেউ তাকে থাকতে দেবেন না। কী উপায়? তখন এলাকার বাসিন্দারাই তাকে নৌকায় রাখার ব্যবস্থা করে। 

এরপর থেকে নৌকাতেই দিন যাপন শুরু করেছেন নিরাঞ্জন। সেখানেই খাওয়া-দাওয়া-ঘুম। তবে নিয়মিত ভাগ্নির বাড়ি থেকে খাবার আসছে তার জন্য। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পক্ষ থেকেও তুলে দেওয়া হচ্ছে খাবার। ১৪ দিন পার হলেই ফের স্বাভাবিক জীবনে ফিরবেন তিনি। নিরাঞ্জন জানান, ডাক্তাররা আলাদা থাকতে বলেছিলেন ১৪ দিন। কিন্তু ভাগ্নির বাড়িতে অতিরিক্ত ঘর নেই। সেই কারণেই এই নৌকাতেই ঠাঁই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা