kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

করোনা নিয়ে ডা. দেবী শেঠীর সেই অডিওটি ভুয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০২০ ১৮:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা নিয়ে ডা. দেবী শেঠীর সেই অডিওটি ভুয়া

করোনাভাইরাস নিয়ে পরামর্শমূলক একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছিল বিশ্বখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ড. দেবী শেঠীর নামে। যেখানে বলা হয়েছিল, ‘করোনা সন্দেহ হলেই পরীক্ষা নয়, আরো বড় সমস্যা হবে! বলা হয়েছিলো জ্বর-সর্দি হলে অন্তত ৭দিন অপেক্ষা করার পর করোনা পরীক্ষা করতে। কারণ ১৩০কোটি মানুষের দেশ ভারতে করোনা পরীক্ষার কিট আছে মাত্র দেড় লাখ।’

অডিওতে বলা হয়, ‘এই বার্তাটি শুধুমাত্র ভারতের জন্য। এখানে সমস্যাটা অন্যরকম। আমাদের দেশের জনসংখ্যা ১৩০ কোটি, আর পরীক্ষা-কিট রয়েছে দেড় লাখেরও কম।’

‘যদি কারোর ফ্লু বা সর্দি থাকে, প্রথমে নিজেকে আইসোলেট করে লক্ষণ ভালো করে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। প্রথম দিন শুধু ক্লান্তি আসবে। তৃতীয় দিন হালকা জ্বর অনুভব হবে। সঙ্গে কাশি ও গলায় সমস্যা হবে। পঞ্চম দিন পর্যন্ত মাথা যন্ত্রণা। পেটের সমস্যাও হতে পারে। ষষ্ঠ বা সপ্তম দিনে শরীরে ব্যথা বাড়বে এবং মাথা যন্ত্রণা কমতে থাকবে। তবে ডায়েরিয়ার লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পেটের সমস্যা থেকে যাবে। এবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অষ্টম ও নবম দিনে সব লক্ষণই চলে যাবে। তবে সর্দির প্রভাব বাড়তে থাকে। এর অর্থ আপনার প্রতিরোধক্ষমতা বেড়েছে এবং আপনার করোনা-আশঙ্কার প্রয়োজন নেই।’

‘এমন সময়ে আপনার করোনা-পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। কারণ আপনার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে। যদি অষ্টম বা নবম দিনে আপনার শরীর আরও খারাপ হয়, করোনা-হেল্পলাইনে ফোন করে অবশ্যই পরীক্ষা করিয়ে নিন।’

অডিওটি নিয়ে টাইমস অফ ইন্ডিয়া একটি রিপোর্ট করেছিল ১৯ মার্চ ২০২০ তারিখে।

কিন্তু ইন্ডিয়া টাইমস গ্রুপের ব্যাঙালোর মিরর আজ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওই ভিডিওটি ভুয়া। তারা ডা. দেবী শেঠীর প্রতিষ্ঠান ‘নারায়ণা হেলথ’ এর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা জানায় অডিওটি ভুয়া। ডা. দেবী শেঠী করোনা নিয়ে এমন কোনো পরামর্শমূলক অডিও ছাড়েননি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা