kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

পানির নয়, আগুনের ঝরনা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০২০ ১৬:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পানির নয়, আগুনের ঝরনা!

পাহাড়ের উপর থেকে নদীর পানি ঝরনা হয়ে নেমে আসছে, এই দৃশ্য দেখতে আমরা সবাই অভ্যস্ত। কিন্তু কখনো পাহাড়ের গা বেয়ে আগুনের নদীকে ঝরনা হয়ে নেমে আসতে দেখেছেন? যদি না দেখে থাকেন তবে ভাইরাল হওয়া এই ভিডিও আপনারই জন্যে। 

ভিডিওটি রবিবার এক ব্যক্তি টুইটারে শেয়ার করেছেন আর তারপর থেকে সেটি দেখে ফেলেছেন কমপক্ষে তিন দশমিক আট মিলিয়ন মানুষ। কালো পাহাড়, তার ওপর সাদা বরফের স্তর। গায়ে আগুনে লাল রঙের আভা, এ যেন স্বর্গীয় দৃশ্য। তবে এমন চমক শুধু দেখা যায় ফেব্রুয়ারি মাসেই। 

ক্যালিফোর্নিয়ার ইয়সমাইট ভ্যালিতে গেলে দেখা যাবে চোখ জুড়ানো এই আগুনের ঝরনা বা ফায়ারফলস। এমন বিরলতম অভিজ্ঞতার সাক্ষী থাকতে ক্যালিফোর্নিয়ায় ছুটে আসেন পর্যটকরা। ইয়সমাইট জাতীয় উদ্যানে এই ঝরনাটি বছরের পর বছর ধরে সকলের নজর কাড়ছে।

সরকারিভাবে হর্সটেল ফল নামে পরিচিত, ক্যালিফোর্নিয়ায় এই জলপ্রপাতটি প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে মাত্র দু'সপ্তাহের জন্য কমলা এবং লাল রঙের হয়ে থাকে। বসন্তের ঠিক আগে আগেই দেখা যায় এই আগুনের ঝরনা বা ফায়ারফলসকে। আসলে সূর্যের আলো এমনভাবে ওই জলপ্রপাতের পানির রঙের ওপর গিয়ে পড়ে যাতে তার রঙ হয়ে ওঠে উজ্জ্বল কমলা। দূর থেকে দেখে মনে হবে পাহাড়ের গা বেয়ে যেন কোনো এক আগ্নেয়গিরির লাভা স্রোত নেমে যাচ্ছে। মনে হবে যেন পাহাড়ের গা বেয়ে চুইয়ে চুইয়ে পড়ছে ওই লাভা।

ওই আগুনের ঝরনা দেখে সকলেই অবাক হয়ে যান। প্রকৃতির এই রূপ দেখে অবাক হবেন আপনিও। যারা এই ভিডিও দেখছেন তারাই অবাক হয়ে নানা মন্তব্য করছেন। হর্সটেল ফল নামে আগুনের ওই ঝরনাটি ইয়সমাইট জাতীয় উদ্যানের এল ক্যাপিটান পাহাড় থেকে প্রায় ২ হাজার ফুট নিচে পড়েছে। 

দূর থেকে দেখলে তাকে ঘোড়ার লেজই মনে হবে, তাই সেটি হর্সটেল ফল নামে পরিচিত। কিন্তু ফ্রেব্রুয়ারির শেষের দিকে রূপ বদলায় এটি। এই সময়টাই এই ঝরনা দেখার মোক্ষম সময়। ফোটোগ্রাফাররা ও প্রকৃতিপ্রেমীরা ওৎ পেতে অপেক্ষা করেন এই স্বর্গীয় দৃশ্যের জন্য। মাত্র ১০ দিন এই চোখ জুড়ানো লাল-কমলা রঙের জলপ্রপাত দেখা যায়।

সূত্র: এনডিটিভি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা