kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘তসলিমা ঘরছাড়া, কিন্তু নাগরিকত্ব পাবে বাংলাদেশের সুদীপ’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৮:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘তসলিমা ঘরছাড়া, কিন্তু নাগরিকত্ব পাবে বাংলাদেশের সুদীপ’

ভারতে বিজেপির নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে এবার কিছুটা অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনও।

১২ ডিসেম্বর টুইটারে এক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘তসলিমা এবং সুদীপ। দুজনেই বাংলাদেশ থেকে এসেছেন। দুজনেই ভারতীয় নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করেছেন। কে পাবে নাগরিকত্ব? সুদীপ, কেননা সে একজন হিন্দু। কিন্তু তসলিমা তার দৃষ্টিভঙ্গির জন্য সুদীপের চেয়েও বেশি নির্যাতিত হয়েছিলেন। তসলিমা সত্যিকার অর্থেই ঘরছাড়া, বাংলাদেশে তাকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। কিন্তু সুদীপকে তেমন কোনো বাধা দেওয়া হচ্ছে না। সুদীপ চাইলে যে কোনো সময় ফিরে যেতে পারবে বাংলাদেশে।’

একই বিষয়ে তিনি আরো বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন। উপরোক্ত টুইটের পরের টুইটে তিনি লেখেন, ‘ইসলামি দেশগুলোতে মুসলিম পরিবার থেকে আসা সেক্যুলার, মুক্তচিন্তক, নাস্তিক এবং ইসলামের সমালোচনাকারীরা অমুসলিমদের চেয়েও বেশি নির্যাতিত, নিপীড়িত, জেল-জুলুম এবং নির্বাসনের শিকার হয় উগ্রবাদি মুসলিম এবং সরকারের হাতে।’

১৩ ডিসেম্বর পোস্ট করা একটি টুইটে তিনি বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে ভারতে আসিনি। আমি ভারতে এসেছি সুইডেন থেকে। আমি ভেবেছিলাম ভারত আমার বসবাসের জন্য আরো ভালো একটি দেশ। আমি এখনো সেরকমই ভাবি। কিন্তু ইউরোপে বসবাস করেন এমন অনেক হিন্দুও আমার মতো ভাবেন না। কোনো দেশ তাদেরই হওয়া উচিত যারা সে দেশকে ভালোবাসে।’

এর পরের আরেকটি টুইটে তিনি লেখেন, ‘এতো আতঙ্ক কেন? ভারত তার বিশাল সংখ্যক মুসলিম জনগোষ্ঠীকে অন্য কোনো দেশে বিতাড়িত করবে না। এই বিল শুধু অবৈধ অভিবাসীদের জন্য। আজকাল এমনকি উদারবাদি পশ্চিমও মুসলিমদের অভিবাসী হিসেবে গ্রহণ করতে রাজি হয় না। আর সেটা কেন হচ্ছে তাও আমরা জানি। বাই দ্য ওয়ে, গতকাল রাতে আমি ফরাসি সিনেমা ‘তাজ মহল’ দেখেছি। সিনেমাটি বানানো হয়েছে মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলা নিয়ে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা