kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

চিকিৎসক বানাতে মেয়েদের নিয়ে প্রতিদিন ১২ কিমি পাড়ি দেন বাবা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৯:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিকিৎসক বানাতে মেয়েদের নিয়ে প্রতিদিন ১২ কিমি পাড়ি দেন বাবা

ঝাঁ-চকচকে রাস্তা নয়। এবড়োথেবড়ো, পাথুরে পথ। কিন্তু মেয়েদের লেখাপড়া শেখার ইচ্ছার কাছে এটা কোনো বাধা? সে কারণে স্বেচ্ছায় বাইকে করে প্রতিদিন ১২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে মেয়েদের স্কুলে পৌঁছে দেন মিয়া খান।

এভাবে প্রতিদিন তিন মেয়েকে রেখে আসা-নিয়ে আসা করেন তিনি। শুধু তাই নয়, স্কুলের বাইরে দাঁড়িয়েও থাকেন অনেক সময়। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম বিষয়টি ছড়িয়ে পড়তেই ধন্য ধন্য রব উঠেছে সারাবিশ্বে। সবাই মিয়ার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। 

আফগানিস্তানে এখনো তালেবান রাজত্ব। মেয়েদের বাইরে বের হওয়া সেখানে প্রায় নিষেধ। সেই নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে মেয়েদের শিক্ষিত করে তোলার ভাবনা সত্যিই  কল্পনার মতো। 

তবে সেই অবাস্তব বাস্তব করে দেখাচ্ছেন মিয়া। সুইডেনের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার স্কুল নুরানিয়ানিয়ায় মিয়া ভর্তি করেছেন মেয়েদের। মিয়ার এত কষ্ট করার পেছনের কারণও আছে। তিনি যেখানে থাকেন, সেখানে একজনও নারী ডাক্তার নেই। সেই অভাব তিনি পূরণ করতে চান মেয়েদের দিয়ে। সে কারণে প্রতিদিন এত পরিশ্রম করে স্কুলে নিয়ে যান মেয়েদের।

এ ব্যাপারে মিয়া বলেন, আমি অশিক্ষিত মানুষ। তার পরেও জানি, শিক্ষার কত মূল্য। বিশেষ করে মেয়েদের লেখাপড়া শেখা খুব জরুরি। এতদিন এ বিষয়ে কেউ নজর দেয়নি বলেই তো এখানে একজনও নারী ডাক্তার নেই। আমার মেয়েরা সেই অভাব পূরণ করবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা