kalerkantho

শনিবার । ২৩ নভেম্বর ২০১৯। ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিজেপির কাছে সোনার দামে দুধ বেচতে গরু নিয়ে রাস্তায় বেকাররা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিজেপির কাছে সোনার দামে দুধ বেচতে গরু নিয়ে রাস্তায় বেকাররা

গরুর দুধে সোনার খোঁজ দিয়েছেন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তার মন্তব্যে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়। দিলীপ ঘোষের মন্তব্যকে এবার হাতিয়ার করে রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল। 

গরুর দুধে সোনার খোঁজ শুরু করেছে তারা। এজন্য কয়েকটি গরু নিয়ে রাস্তায় নেমেছে তৃণমূল। দলটির পক্ষ থেকে অভিনবভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে ব্যঙ্গ করা হচ্ছে দিলীপ ঘোষকে। তৃণমূলের প্রতিবাদকে নাটকবাজি বলে জানিয়েছে বিজেপি।

ভারতের শ্রীরামপুর স্টেশনের টিকিট কাউন্টারের সামনে গরু নিয়ে এসে দুধ দুইয়ে তা বিক্রি করা হয়। আর নাম দেওয়া হয় 'স্বর্ণ যোজনা'। সঙ্গে ব্যানারে লেখা, গরুর দুধ ৪০ টাকা সের, সোনার ভরি ৪০ হাজার টাকা। সে কারণে দুধ কিনতে হবে সোনার দরে।

তৃণমূলের পক্ষ থেকে বলা হয়, কলেজ ছাত্র থেকে শুরু করে বেকার যুবকরা সোনার দরে দুধ বেচেই জীবিকা নির্বাহ করতে চায়। সত্যিই যদি দুধে সোনা থাকে, তাহলে বিজেপির লোকজন সেই দুধ কিনে নিক। 

বিজেপির সভাপতিকে গোয়ালা সাজিয়ে, ব্যানার ছাপিয়ে ৩০ হাজারে এক লিটার দুধ বেচতে চায় বেকার যুবকরা। বিজেপির শ্রীরামপুর সাংগঠনিক সভাপতি শ্যামল ঘোষ বলেন, গরুর দুধে সোনার প্রসঙ্গের ভুল ব্যাখ্যা করে নাটকবাজি শুরু করেছে তৃণমূল। মানুষকে বিভ্রান্ত করছে তারা।

দিলীপ ঘোষ বলেছেন, গরুর দুধে সোনার উপাদান আছে এটা সত্যি। বিজ্ঞানীরাও সেটা স্বীকার করেছেন। যেমন, পানিতে আয়রন আছে। তার মানে কি পানি থেকে লোহা বের হবে? রড তৈরি হবে? তা তো নয়। তেমনই দুধ থেকে সোনার বার বের হবে; তা তো নয়। এরা সব জেনেও নাটকবাজি করছে।

শ্রীরামপুর পৌরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর পাপু সিং বলেন, ভারত সরকার কোনো চাকরি দিতে পারছে না। তাই শ্রীরামপুর কলেজের ছাত্ররা, বেকার যুবকরা ও সঙ্গে আমরাও দুধের বদলে সোনার দাবি জানাচ্ছি। আমরা এই ব্যবসায় নামছি। তাই তাদের বার্তা দিতে চাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা