kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের পর প্রেমিকা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়তেই বেঁকে বসে যুবক। থানা-পুলিশ করেও কোনো লাভ হয়নি। বেকায়দায় পড়ে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসেছেন অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী। 

আজ শনিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধরনা তুলে বাড়ি পাঠিয়েছে কিশোরীকে।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার শিবগঞ্জের বারুইপাড়ার ওই কিশোরীর সঙ্গে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল পাথরপ্রতিমা থানার মাধবনগরের গোবিন্দপুরের বাসিন্দা সুপ্রিয় ভুঁইয়ার। দীর্ঘদিনের সম্পর্কে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তারা। এতে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই কিশোরী। নানা টালবাহানায় আটমাস পেরিয়ে যায়।

যদিও কিশোরীর অভিযোগ, সুপ্রিয় প্রথমবার তাকে ধর্ষণ করেছে। পরে ভয় দেখিয়ে, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে বাধ্য করেছে। কিন্তু সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে সব সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে সুপ্রিয়। সমস্যা সমাধানে কিশোরীর পরিবার সুপ্রিয়র পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে গেলেও কোনো লাভ হয়নি। উল্টো বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয় তাদের। এরপর থানায় অভিযোগ করেন কিশোরীর মা। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি। 

শনিবার সকালে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেয় কিশোরী। অভিযোগ উঠেছে, সেই সময় ওই কিশোরী ও তার পরিবারের সদস্যদের ওপর চড়াও হয় যুবকের পরিবারের সদস্যরা। অশান্তি আঁচ করেই বাড়ি থেকে চম্পট দেয় সুপ্রিয়। 

এরপর তার প্রতিবেশীরা কিশোরীর পাশে দাঁড়ায়। খবর যায় পাথরপ্রতিমা থানায়। ঘটনাস্থলে পৌঁছাতেই উত্তেজিত জনতা চড়াও হয় পুলিশের ওপর। অভিযুক্ত যুবকের শাস্তির দাবি জানায় তারা। 

এরপরই অভিযুক্তের বাবা-মাকে আটক করে পুলিশ। সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে পকসো ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। এরই মধ্যে পুলিশের তৎপরতায় ধরনা তুলে বাড়ি পাঠানো হয়েছে ওই কিশোরীকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা