kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

দেড় লাখের মালা গিলে ফেলল ষাঁড়, পশ্চাৎদেশে অস্ত্রোপচারে গুপ্তধন উদ্ধার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৯:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেড় লাখের মালা গিলে ফেলল ষাঁড়, পশ্চাৎদেশে অস্ত্রোপচারে গুপ্তধন উদ্ধার

সচরাচর শোনা যায়, ঘাস কিংবা লতাপাতা ভেবে গরু অনেক সময় গলায় লাগানো দড়ি খেয়ে ফেলে। কিন্তু এবার ভারতের মহারাষ্ট্রের একটি ষাঁড় যে কাণ্ড করেছে, তা শুনলে রীতিমতো তাজ্জব বনে যেতে হয়।

জানা গেছে, সোনার একটি মঙ্গলসূত্র গিলে ফেলেছে ওই গরু। সোনার মঙ্গলসূত্রটির ওজন প্রায় চার গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় দেড় লাখ টাকা। ঘটনাটি ঘটেছে আহমেদনগর জেলার রেতি ওয়াঘাপুর গ্রামে।

পশুচিকিৎসক নেন বলেন, ঘটনাটি ঘটে ষাঁড় উৎসব চলাকালীন। মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তিসগড়ের গ্রামীণ এলাকায় মানুষের সঙ্গে পশুর সম্পর্ক কতটা গভীর, সেটা দেখার ও উদযাপনের জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জানা গেছে, উৎসবের দিন কৃষক তার ষাঁড়কে সুন্দর করে সাজিয়ে রাস্তায় নামান। বাড়ির নারীরা ষাড়ের পূজা করেন। অনুষ্ঠানের রীতি মেনে ষাড়ের মাথায় সোনার অলঙ্কার পরিয়ে দেওয়া হয়।

গত ৩০ আগস্ট ওই অনুষ্ঠানের পর দুই ষাড়ের মালিক বাড়ি ফিরে দেখতে পান একটি ষাড়ের কপালের মঙ্গলসূত্র খুলে আরতির থালায় রাখা রয়েছে। পূজার প্রসাদ হিসেবে মিষ্টি রুটি খাওয়ানো হচ্ছিল ষাঁড়গুলোকে। আচমকা বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় এক নারী মোমবাতি আনতে যান। আরতির থালাটি মাটিতে রেখে যান। এসে দেখতে পান রুটির সঙ্গে সোনার মালাটি থালা থেকে খেয়ে ফেলেছে ষাড়টি। স্বামীকে জানালে ষাঁড়ের মুখ খুলে মালা বের করার চেষ্টা করেও লাভ হয়নি।

কিন্তু ষাঁড়টির কোনোরকম ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা শুরু হয় তাদের। এর পর পশু চিকিৎসকের কাছে ষাঁড় দুটিকে নিয়ে যাওয়া হয়। মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে দেখা হয়, আসলে কোন ষাঁড়ের পেটে মালা রয়েছে। এর পর অস্ত্রোপচার করে ষাঁড়ের মলদ্বার থেকে মঙ্গলসূত্র বের করা হয়। আপাতত ষাঁড়টিকে বিশ্রামে রাখা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা