kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ইউল্যাব ইইই ফেস্ট ২০১৯

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৫:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ইউল্যাব ইইই ফেস্ট ২০১৯

ইউল্যাবের ইইই ও ইটিই ডিপার্টমেন্ট এবং ইউল্যাব ইলেক্ট্রনিক্স ক্লাব যৌথভাবে সম্প্রতি ইউল্যাব ইইই ফেস্ট ২০১৯ নামক প্রযুক্তি বিষয়ক এক মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলতাকে আরো উৎসাহিত করতে এবং প্রযুক্তি বিষয়ক জ্ঞানকে আরো সমৃদ্ধ করতে ইউল্যাবে ৫-৬ সেপ্টেম্বর দুইদিন ব্যাপী এই ফেস্টের আয়োজন করা হয় । বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজনটি ছিল উন্মুক্ত।
 
বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ইইই ফেস্টের বিভিন্ন আয়োজনে অংশ নিয়েছে। ইইই ফেস্টের বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে ছিল প্রজেক্ট শোকেসিং, পোস্টার প্রেজেন্টেশন, ব্রেইন টিজার (বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ), গেইম ফিয়েস্তা, টেক আড্ডা, ইন্ডাস্ট্রির সাথে মতবিনিময় এবং সাংস্কৃতিক আয়োজন।

প্রথম দিন ৫ সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠানের উদ্বোধনের মাধ্যমে আয়োজন শুরু হয়েছিল। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ইউল্যাবের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এইচ এম জহিরুল হক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাবের ইইই ডিপার্টমেন্টের চেয়ার প্রফেসর ড. সামিয়া সাবরিনা ও ইটিই ডিপার্টমেন্টের চেয়ার প্রফেসর ড. মোফাজ্জল হোসেন। এর পরের আয়োজনে ছিল বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পোস্টার প্রেজেন্টেশন। এতে অংশ নেন কুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়, সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এই দিন আরো একটি আয়োজন ছিল কম্পিউটার গেইম বিষয়ক- 'গেইম ফিয়েস্তা'। এখানে প্রতিযোগীরা তিনটি ভিন্ন ভিন্ন গেইমে প্রতিযোগিতা করে।

ইইই ফেস্টের চূড়ান্ত দিন ৬ সেপ্টেম্বরে প্রজেক্ট শোকেসিং দিয়ে দিনের কর্মযজ্ঞ শুরু হয়। এতে এমআইএসটি, ইউএপি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, এআইইউবি সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের বিভিন্ন উদ্ভাবন প্রদর্শন করে। এদিনের আরেকটি মজার আয়োজন ছিল ব্রেইন টিজার, যেখানে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান বিষয়ক মজার মজার সমস্যা সমাধান করতে হয়েছিল। দিনের পরের ভাগে ছিল টেক আড্ডা, ইন্ডাস্ট্রির সাথে মতবিনিময় ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা।

এদিন সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বুয়েটের সিএসই ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ, যিনি বাংলাদেশে ম্যাথ অলিম্পিয়াড জনপ্রিয়করণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। আর বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বুয়েটের ইইই ডিপার্টমেন্টের প্রফেসর ড. এস. এম. মাহবুবুর রহমান, যিনি বর্তমানে বুয়েটের রেজিস্ট্রার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। অতিথিদের মধ্যে আরো ছিলেন ইউল্যাবের প্রো-ভিসি  প্রফেসর  ড. সামসাদ মর্তুজা। সমাপনী অনুষ্ঠানে তাঁরা বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা