kalerkantho

পাঁচ শতাধিক নারীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ আগস্ট, ২০১৯ ২১:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাঁচ শতাধিক নারীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউবে অনেক রকম প্রাঙ্ক ভিডিও দেখা যায়। সেখানে অনেক ভিডিওতে দেখা যায়, একনাগাড়ে বহু নারীকে চুম্বন কিংবা স্তন স্পর্শ করছেন এক ব্যক্তি। সেসব ভিডিও ওইসব নারীদের অনুমতি নিয়েই ধারণ করা হয়। 

তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে আগে কোনো ব্যক্তির সঙ্গে মজার ঘটনা ঘটিয়ে ফেলে পরে বলা হয় এটা প্রাঙ্ক ভিডিও। তবে এক ব্যক্তি মেট্রোতে চলাচল করা নারীদের নিম্নাঙ্গের ভিডিও গোপনে ধারণ করে সেসব আপলোড করে দিতেন ইউটিউবের পর্নো সাইটে।

এভাবে পাঁচ শতাধিক নারীর ভিডিও তিনি ইউটিউবে আপলোড করেছেন। জানা গেছে, ওই নারীদের মধ্যে অনেকেই শিশু। এ ধরনের ভিডিও ধারণ কালে স্পেনের মাদ্রিদ পুলিশের হাতে তিনি আটক হন।

পুলিশ জানিয়েছে, ৫৩ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি মোট ২৮৩টি ভিডিও পর্নো সাইটে আপলোড করেছেন। পাঁচশ ৫৫ জন নারীর ভিডিও অজান্তে ধারণ করেছেন এই ব্যক্তি।

২০১৮ সাল থেকে নিয়মিত ভিডিও ধারণ করে পর্নোসাইটে আপলোড করে আসছেন তিনি। এখন পর্যন্ত তার এসব ভিডিও কয়েক মিলয়ন বার দেখা হয়েছে। তার ইউটিউব চ্যানেলেসোবস্ক্রাইবার সংখ্যাও অনেক।

পুলিশ বলছে, ভালো মানের রেজ্যুলেশন পাওয়ার জন্য ওই ব্যক্তি নারীদের একেবারে কাছাকাছি চলে যেতেন। তারপর নিম্নাঙ্গের ভিডিও ধারণ করতেন। কলম্বিয়ার এই ব্যক্তি বর্তমানে পুলিশি হেফাজতে আছেন। 

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে ব্রিটেনেও এ ধরনের ভিডিও ধারণ করা ফৌজদারি অপরাধ। কারো অজান্তে তার নিম্নাঙ্গের ভিডিও ধারণ করলে দুই বছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা