kalerkantho

ভেবেছিল মৃত বাঘ, ছবি তুলতে যেতেই লাফ দিয়ে ঘাড়ে! (ভিডিও)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ১৬:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গে ট্রাকের ধাক্কায় আহত হয়েছে একটি পূর্নবয়স্ক চিতাবাঘ। আজ সোমবার সকাল আটটা নাগাদ আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটার বীরপাড়ায় জাতীয় সড়কের কাছে শালধুয়া এলাকায় রাস্তা পার করছিল চিতাবাঘটি। সেই সময় একটি ট্রাক ধাক্কা দিলে ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ঘটনাটি জানতে পেরে জলদাপাড়া ও দলগাঁও রেঞ্জের বনকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে চিতাবাঘটিকে উদ্ধার করেন। বর্তমানে চিকিৎসা চলছে তার।

রাজ্যটির বনদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকালে আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটার বীরপাড়া শালধুয়া এলাকায় রাস্তার পাশে চিতাবাঘটিকে পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। ছবি তুলতে গেলে আহত অবস্থাতেই এক ব্যক্তিকে তাড়া করে চিতাবাঘটি। গোটা ঘটনার খবর পেয়ে বনদপ্তরের কর্মীরা গিয়ে চিতাবাঘটিকে উদ্ধার করে। জানা গিয়েছে, আহত চিতাবাঘটি পূর্নবয়স্ক ও স্ত্রী। ইতিমধ্যেই জলদাপাড়ার দক্ষিণ খয়েরবাড়ি চিতাবাঘ পুনর্বাসন কেন্দ্রে জখম প্রাণীর চিকিৎসা শুরু হয়েছে। তবে এখনও ঘাতক লরির কোনও হদিশ পায়নি বনদপ্তরের কর্মীরা।

দলগাঁও ফরেস্টের রেঞ্জার রাজীব দে বলেন,  'চিতাবাঘটি গুরুতর জখম হয়েছে। ফালাকাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আমরাও এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি।' সোমবারের ঘটনার পর ফের জাতীয় সড়কে যানবাহনের গতি নিয়ন্ত্রণের দাবি তুলেছেন বন্যপ্রাণপ্রেমীরা। তাঁদের অভিযোগ, বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানোর জেরেই এই পরিস্থিতি।

আলিপুরদুয়ার নেচার ক্লাবের সদস্য অমল দত্ত বলেন, 'জাতীয় সড়কে যানবাহনের গতিতে হ্রাস না টানা হলে উত্তরবঙ্গে একের পর এক বন্যজন্তুর মৃত্যর খবর পাওয়া যাবে। এর আগে গাড়ির ধাক্কায় উত্তরবঙ্গে একাধিক বন্যপ্রাণীর মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু যানবাহনের গতি নিয়ন্ত্রণের জন্য কার্যত কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি প্রশাসনের পক্ষ থেকে।' 

কড়া সুরে তাঁরা বলেন, অভিযোগ জানিয়ে যখন কোনও কাজ হয়নি, তখন প্রয়োজনে আমরা আদালতের দ্বারস্থ হব, কিন্তু এই পরিস্থিতির পরিবর্তন করতেই হবে। 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা