kalerkantho

স্বামী চুল ধরে, ননদরা কেরোসিন ঢালে, শাশুড়ি দেশলাই জ্বালায়, গৃহবধুর মৃত্যু মেয়ের সামনে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ১৫:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বামী চুল ধরে, ননদরা কেরোসিন ঢালে, শাশুড়ি দেশলাই জ্বালায়, গৃহবধুর মৃত্যু মেয়ের সামনে

প্রতীকী ছবি

স্বামী তিন তালাক দিয়েছিলেন। থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন স্ত্রী। এ কারণে স্ত্রীকে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারলেন স্বামী, শাশুড়ি ও ননদরা। 

৫ বছর বয়সী মেয়ের সামনে মাকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে অভিযোগ। শুক্রবার ভারতের উত্তর প্রদেশের শ্রাবস্তী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত নারীর স্বজনরা জানান, ওই নারীর নাম সইদা। মুম্বাই থেকে ফোনে সইদাকে তিন তালাক দেন তার স্বামী। গত ৬ আগস্ট অভিযোগ জানাতে স্থানীয় থানায় যান সইদা। কিন্তু অভিযোগ না নিয়েই তাকে ফিরিয়ে দেন পুলিশ কর্মকর্তারা। স্বামীর সঙ্গেই ঘর করতে পরামর্শ দেন তারা। গত ১৫ আগস্ট সইদার স্বামী নাসিফকে থানায় ডেকে পাঠিয়ে সতর্ক করা হয়। 

তবে পুলিশের পরামর্শে কর্ণপাত করেননি নাসিফ। বাড়ি ফিরে ফের স্ত্রীকে বেরিয়ে যেতে বলেন তিনি। এরপর ফের দুজনের মধ্যে বিতণ্ডা শুরু হয়। 

মেয়ে জানিয়েছে, বাড়ির সবাই মিলে জ্যান্ত পুড়িয়ে মেরেছে তার মাকে। প্রথমে বাবা চুলের মুঠি ধরেন। এরপর তার ফুফুরা মায়ের গায়ে কেরোসিন ঢেলে দেন। আর দাদি দেশলাই জ্বালিয়ে ছুড়ে মারেন তার মায়ের গায়ে।

জানা গেছে, ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যৌতিকের দাবিতে গৃহবধূ নির্যাতনের ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। 

সূত্র : জি-নিউজ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা