kalerkantho

মাঝরাতে গৃহবধূকে জাপটে ধরল ভূত, রহস্য ভেদ স্বামীর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ আগস্ট, ২০১৯ ১২:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাঝরাতে গৃহবধূকে জাপটে ধরল ভূত, রহস্য ভেদ স্বামীর

প্রতীকী ছবি

ভূত সেজে ১৯ বছর বয়সী এক গৃহবধূর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনটাই ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পূর্ব বর্ধমানে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সুরজ শেখ নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

জানা গেছে, ইদানিং ভূতের আতঙ্কে ছিলেন ওই গৃহবধূ। রাতদুপুরে বাড়িতে ঢিল পড়ছে, কখনও বিছানায় শুতেই জানালা দিয়ে হাত বাড়িয়ে কেউ পা ধরে টানাটানি করছে, কখনো বা দিচ্ছে পায়ে সুরসুরি। ভূতের ভয়ে তটস্থ থাকতেন তিনি। 

স্থানীয়দের দাবি, গত কয়েকদিন ধরেই ওই এলাকায় ভূতের উপদ্রব শুরু হয়েছে। এবার গৃহবধূর শ্লীলতাহানি চেষ্টা করেছে 'ভূত'। ভূত সেজে ন্যক্কারজনকভাবে গৃহবধূর গোপনাঙ্গে হাত দিয়েছে। 

এদিকে, এই ঘটনার তদন্তে নেমেই ফাঁস হলো আসল তথ্য। পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া পুর এলাকার থান্ডারপাড়ার ঘটনা এটি। 

নির্যাতিতার অভিযোগ, প্রায় রাতেই বাড়িতে ঢিল ছোঁড়া, চুল ধরে টানাটানির ঘটনা ঘটত। কিন্তু কাউকে দেখতে পেতেন না তিনি।তিনি ভাবতেন এটা 'ভূতে'র কাণ্ড।  

অবশেষে তদন্তে জানা গেল, প্রতিবেশী সুরজ শেখই দেড়মাস ধরে ভূত সেজে এসব কাণ্ড ঘটাচ্ছিল। 

ওই নারীর অভিযোগ, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ খাওয়াদাওয়া শেষ করে শুতে যাওয়ার সময় আচমকা ভেজানো দরজা ঠেলে ঢুকে পড়ে 'ভূতবেশী' সুরজ। সে মুখ চেপে ধরে তাঁর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। সে সময় স্ত্রীর চিত্‍কারে ঘুম ভেঙে যায় স্বামীর।  

নির্যাতিতার স্বামী জানান, স্ত্রীর চিৎকার শুনে ঘরের আলো জ্বালতেই দেখতে পান বিভত্‍স চেহারার একজন তাঁর স্ত্রীকে জাপটে ধরে রয়েছে। মুখে ময়দা, পাউডার মাখা। সারা শরীরে ও মুখে কালি। কালি মুছতেই বেরিয়ে আসে আসল চেহারা। 

এরপর এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

ওই নারী জানান, চিৎকার করে পাড়া-পড়শিদের ডাকতেই অভিযুক্ত যুবক তাঁকে গুলি করে খুন করার হুমকি দেয় এবং হাত ছাড়িয়ে পালিয়ে যায়।' 
পুলিশ অভিযুক্ত সুরজ শেখকে গ্রেপ্তার করেছে।  

সূত্র : নিউজ এইটিন 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা