kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

হঠাৎই বুড়িয়ে যাচ্ছেন সবাই!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৯ ২০:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হঠাৎ করেই টাইম মেশিন চেপে বেশ কয়েকটা বছর এগিয়ে বা বেশ কয়েকটা বছর পিছিয়ে গিয়ে নিজের চেহারাটা দেখতে চান? তাহলে আপনার জন্যই রয়েছে একটি অ্যাপ। টাইম মেশিনের মতোই কাজ করবে এটি। তবে শুধু চেহারার বিবর্তন দেখতে পারবেন এটি দিয়ে। স্মার্টফোনে ফেসঅ্যাপ নামের একটি অ্যাপ ডাউনলোড করে নিলেই সময় ধরা দেবে আপনার হাতে।

২০১৭ সালে এই অ্যাপটি বাজারে আসে। কিন্তু তখন এটি জনপ্রিয়তা পায়নি। আর বর্তমানে এই অ্যাপের ছবিতে সমাজিক যোগাযোগমাধ্যম সয়লাব।

শুধু কি আপনার বন্ধু বা পরিচিত মানুষটা? জোয়ারে গা ভাসিয়েছে হলিউড, বলিউড থেকে ক্রীড়াজগৎ। নিক জোনাস ও তার দুই ভাই, অভিনেতা অর্জুন কাপুর, বরুণ ধাওয়ানও আছেন সেই তালিকায়। এক পা বাড়িয়ে টটেনহ্যাম হটস্পার, দল তথা ইংল্যান্ডের ফুটবল অধিনায়ক হ্যারি কেন-এর বয়সটাও বাড়িয়ে দিয়েছেন। কোনো কোনো ব্লগ নিজেরাই উদ্যোগ নিয়ে বুড়িয়ে দিয়েছেন বলিউডের মহাতারকা, ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যদের।

এমনিতে ফেসবুকে এমন অসংখ্য অ্যাপ আছে যা আপনার সঙ্গে কোনও সেলেবের মিল খুঁজে বের করে, কোনওটা বুড়ো বানিয়েও দেয়। কিন্তু ফেসঅ্যাপের মতো এতো নিখুঁত অন্য কোনওটাই নয়।

এই অ্যাপটিতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা হয়। এমনিতে ফেসবুকে এমন অসংখ্য অ্যাপ আছে যা আপনার সঙ্গে কোনো ব্যক্তির মিল খুঁজে বের করে, কোনওটা বুড়ো বানিয়েও দেয়। কিন্তু ফেসঅ্যাপের মতো এতো নিখুঁত অন্য কোনওটাই নয়। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের মাধ্যমে এ আপনার বয়সে এমন কল্পনার টান দিচ্ছে যে নিজেই নিজের প্রেমে পড়ে যাবেন।

ফেসঅ্যাপ ব্যবহার করতে হলে, প্রথমে প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন। এবার এটি খুলে অ্যাড ইজেম অপশন ক্লিক করে নিজের একটি ছবি নিয়ে আসুন গ্যালারি থেকে। ক্যামেরা অপশনের মাধ্যমে ছবি তুলেও এডিট করতে পারেন। ছবি এলেই কতোগুলো অপশন খুলে যাবে। আপনি যদি নিজের বার্ধক্যকে চোখের সামনে দেখতে চান, তবে ওল্ড অপশনটি বেছে নিন। আর যদি নিজের তারুণ্যকে দেখতে চান তাহলে ইয়াং অপশনটি বেছে নিন। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

এই অ্যাপটি যেহেতু নিরাপত্তহীন তাই নিজ দায়িত্বে ব্যবহার করুন। এটি ব্যবহার করার ফলে আপনার ফোনের সকল ছবিতে হাত দিতে পারে হ্যাকাররা।

সূত্র: সিএনএন, ডেইলি মেইল, আনন্দবাজার ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা