kalerkantho

বুধবার । ২৪ জুলাই ২০১৯। ৯ শ্রাবণ ১৪২৬। ২০ জিলকদ ১৪৪০

কেরালা বন্দর থেকে নিখোঁজ একশ ভারতীয়র খোঁজে ইন্টারপোলের নোটিস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ জুন, ২০১৯ ২০:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেরালা বন্দর থেকে নিখোঁজ একশ ভারতীয়র খোঁজে ইন্টারপোলের নোটিস

মাস ছয়েক আগে ভারতের কেরালা বন্দর থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যায় একশ জন ভারতীয় নাগরিক। দীর্ঘদিন ধরে তল্লাশি চালিয়েও ফল না পাওয়ার জেরে এবার নিখোঁজদের বিরুদ্ধে ‘ব্লু-কর্নার নোটিস’ (বিসিএন) জারি করেছে ইন্টারপোল। এ ঘটনায় রীতিমতো উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে প্রশাসনিক মহলে।

কোচির মুনাম্বাম বন্দর থেকে দু'শ ৪০ জনের বেশি ভারতীয় নাগরিক একটি জাহাজে চড়ে যাত্রা শুরু করেন। অভিযোগ উঠেছে, অবৈধভাবে তাদের বিদেশে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছিল। জাহাজটি যাত্রা করার পর থেকে তাদের আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় ইন্টারপোলের দ্বারস্থ হয় কেরালা পুলিশ। 

তারা একশ ২০ জনের জন্য আবেদন জানালেও, একশ জনের নামে নোটিস জারি করেছে আন্তর্জাতিক ওই সংস্থা। তদন্তকারীদের উদ্বেগ বাড়িয়ে কিছুদিন আগে, এক নিখোঁজ ব্যক্তির পরিবার জানায়, ওই দলের এক সদস্য তাদের ফোন করেছিল। সেই ফোনটি আলজেরিয়া থেকে এসেছিল বলে জানানো হয়। 

পাশাপাশি, জাহাজটি অস্ট্রেলিয়ার দিকে যেতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছিল। যদিও, আলজেরিয়া ও অস্ট্রেলিয়া, দুই দেশের সরকারই জানিয়ে দিয়েছে, এ ধরনের কোনো যাত্রীবাহী জাহাজ তাদের কোনো বন্দরে নোঙর করেনি।

অন্যদিকে, কেরালা প্রশাসনও জানিয়েছে ওই দুই দেশে জাহাজটির যাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। সরকারি কর্মকর্তাদের মতে, এখন পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে, তাতে জাহাজটির গতিপথ নিয়ে ধোঁয়াশা কমার বদলে আরো বেড়ে গেছে। 

অনেকে মনে করছেন, জাহাজটি মাঝসমুদ্রে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে থাকতে পারে জাহাজটি। তবে সেক্ষেত্রে কোনো না কোনো জলযান ওই জাহাজের ধবংসাবশেষ দেখতে পেত। আবার এটাও বলা হচ্ছে, যে উপকূলরক্ষীদের নজর এড়াতে ছোট নৌকায় করে ওই যাত্রীদের অন্য কোনো জাহাজে তুলে দেওয়া হয়েছে। 

প্রসঙ্গত, অনেক সময় কোনো ব্যক্তি অপরাধ করে অন্য দেশে পালিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য ইন্টারপোল ব্লু কর্নার নোটিস জারি করে। এই নোটিস জারি হলে, ওই ব্যক্তিকে খুঁজে বের করা, তার পরিচিতি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ-সহ একাধিক সুবিধা পায় সংশ্লিষ্ট দেশের প্রশাসন।

মন্তব্য