kalerkantho

একের পর এক রহস্যময় খুন পরিবারে, এবার নিহত বৃদ্ধা, কান উধাও

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ জুন, ২০১৯ ১৪:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একের পর এক রহস্যময় খুন পরিবারে, এবার নিহত বৃদ্ধা, কান উধাও

৭০ বছর বয়সী শুকজান বিবি ছিলেন পরিবারটির জ্যেষ্ঠ সদস্য। গত ১০-১২ বছরে ওই পরিবারে ঘটেছে তিনটি হত্যার ঘটনা। এর কোনো রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। তবে অভিযোগের আঙ্গুল ছিল শুকজান বিবির দিকেই।

এবার খুন হলেন শুকজান নিজেই। এ নিয়ে ওই বাড়িতে খুন হলেন চারজন। রহস্যময় এসব  হত্যার ঘটনার জন্ম দিয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলার বাদুড়িয়ার একটি পরিবার। 

মঙ্গলবার সকালে পুলিশ শুকজান বিবির রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে। লাশ উদ্ধারের সময় শুকজানের একটি কান কাটা ছিল। সেখান থেকে রক্ত ঝরছিল। এ ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে বাদুড়িয়ার জগন্নাথপুরে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর গ্রামে থাকতেন দেওয়ান আলি মণ্ডল, তাঁর স্ত্রী শুকজান বিবি এবং তাঁদের দুই মেয়ে ও এক ছেলে। দেওয়ান আলি ও শুকজান উভয়েরই দুটি করে বিয়ে। স্বামীর মৃত্যুর পর নাতির কাছে থাকতেন শুকজান।

মঙ্গলবার সকালে বাড়ির বারান্দার এক পাশে বৃদ্ধা শুকজানের রক্তাক্ত মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এ সময় বৃদ্ধার একটি কান কাটা ছিল। সেখান থেকে রক্ত ঝরছিল। 

প্রতিবেশীরা জানায়, গত কয়েক বছরে এ নিয়ে একই বাড়িতে এক শিশুসহ চারজনকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এসব হত্যাকাণ্ডের কারণে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে ওই গ্রামে।

পুলিশ জানায়, আগের তিনটি খুনের ক্ষেত্রে ওই বৃদ্ধার নামে অভিযোগ উঠেছিল।

পুলিশ আরো জানায়, আট বছর আগে বড় ছেলের স্ত্রীর মুখে বালিশ চাপা দিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছিল শুকজানের বিরুদ্ধে। কয়েক বছর পর ওই পরিবারের ফুলজান বিবি এবং তার সাত মাসের সন্তান আরিজুল ওরফে মনাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। ওই হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ ওঠে শুকজানসহ ওই পরিবারের কয়েকজনের বিরুদ্ধে।

সম্পত্তি আত্মসাতের জন্য এসব হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে অভিযোগ ওঠে।

সূত্র : আজকাল 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা