kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

গভীর খাদে প্রাণিটি গায়ের উষ্ণতা দিয়ে মনিবকে বাঁচিয়ে রাখল, উদ্ধারও করল একদিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুন, ২০১৯ ১৩:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গভীর খাদে প্রাণিটি গায়ের উষ্ণতা দিয়ে মনিবকে বাঁচিয়ে রাখল, উদ্ধারও করল একদিন

প্রিয় কুকুরকে নিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন কেরি জরদান। নিউজিল্যান্ডের পাহ্যাতুয়ায় সড়ক ধরে যাওয়ার সময় পড়েন মারাত্মক দুর্ঘটনায়। খাদে গাড়িটি উল্টে পড়ে ছিল তিন দিন।

এই সময় তীব্র ঠাণ্ডায় মনিবকে পরিচর্যা আর উষ্ণতা দিয়েছিল কুকুরটি। প্রাণীটির জন্যই ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পেরেছিলেন উদ্ধারকর্মীরা। 

সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, ৬৩ বছর বয়সী ওই নারী বেঁচে ছিলেন তাঁর প্রিয় কুকুরটির সহযোগিতা পেয়ে। প্রাণীটি তাঁকে ঠাণ্ডায় উষ্ণতা দেয়। একপর্যায়ে নিজেই ডেকে আনে উদ্ধারকর্মীদের।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বৃহস্পতিবার নিউজিল্যান্ডের নর্থ আইল্যান্ডের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের মফস্বল শহর পাহ্যাতুয়ার একটি সড়কে মারাত্মক দুর্ঘটনায় পড়েন কেরি। এতে তাঁর গাড়িটি সড়ক থেকে ৪৫ মিটার নিচের এক খাদে উল্টে যায় গাড়িটি। তাঁর পায়ের গোড়ালির হাড় ভেঙে যায়। মারাত্মক আঘাত পান ঘাড় এবং বুকে। 

 

অনেক কষ্টে হামাগুঁড়ি দিয়ে গাড়ির ভেতর থেকে বের হন কেরি। নির্জন এলাকায় আশপাশে কেউ ছিল না। পাঁচ বছর ধরে থাকা প্রিয় কুকুর প্যাটকে সঙ্গে নিয়ে পাশের একটি ঝোপের ভেতর আশ্রয় নেন তিনি।

তিন সেখানে থাকার পর রবিবার কুকুরটি ঘেউ ঘেউ করে তাদের নিকট দিয়ে যাওয়া দুই পথচারীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে। তারা এগিয়ে এসে অবস্থা স্বচক্ষে দেখেন। তারপর খবর দেন উদ্ধারকর্মীদের। সাথে সাথে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস  এবং জরুরি উদ্ধারকর্মীরা। হাজির হয় একটি উদ্ধারকারী হেলিকপ্টারও।

উদ্ধারকারী হেলিকপ্টারের মুখপাত্র এনজেড হেরাল্ডকে বলেন, ঘটনাস্থলে পৌঁছালে কুকুরটি আমাদের আহত কেরির কাছে নিয়ে যায়। পরে কেরিকে উদ্ধার করে আমরা হেলিকপ্টারযোগে পলমারস্টন নর্থ হসপিটালে নিয়ে যাই। সেখানে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে রাখা হয়েছে তাঁকে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

কেরির এক বন্ধু ফিয়োনা নর্থে জানান, পুলিশ তাঁকে জানিয়েছে দুর্ঘটনার পর তিন দিন ধরে প্যাট নামের কুকুরটিই কেরিকে আগলে রেখেছিল। উদ্ধারকর্মীরা না পৌঁছানো পর্যন্ত কুকুরটি তার মালিককে নিরাপত্তা ও উষ্ণতা দিয়ে রক্ষা করে। বলা যায়, কুকুরটির জন্যই কেরি এখন পর্যন্ত বেঁচে আছেন। 

সূত্র : ডেইলি মেইল 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা