kalerkantho

রবিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০২০। ৫ মাঘ ১৪২৬। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

এবার খাবার পৌঁছে দেবে ড্রোনই!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ জুন, ২০১৯ ১১:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এবার খাবার পৌঁছে দেবে ড্রোনই!

ঝাঁমেলা এড়ানোর সহজ উপায় এখন সকলের হাতের নাগালেই। স্মার্টফোনের একটা ক্লিকেই হাতের সামনে চলে আসে পছন্দের খাবার। কিন্তু অর্ডার করার পর সেই খাবার এসে পৌঁছাতে বেশ কিছুটা সময় লেগেই যায়। শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধানে দ্রুত খাবার ডেলিভারির জন্য ড্রোন ব্যবহার করবে জোমাটো। অর্থাৎ ১০ মিনিট পর দরজা খুলে দেখলেন একটা আস্ত ড্রোন আপনার বাড়ির বাইরে অর্ডার করা গরম খাবার নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। 

কয়েকদিন আগে নিজের টুইটারে এ সংক্রান্ত  একটি ভিডিও পোস্ট করেন জোমাটো'র সিইও দ্বীপেন্দর পোস্টে গয়াল জানান, একটি ড্রোনের পরীক্ষা করা হয়েছে। ৫ কিলো ওজন নিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে ৫ কিলোমিটার উড়ে যেতে সক্ষম এই ড্রোন। প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ গতিবেগ ৮০ কিলোমিটার। অনেকদিন ধরেই আকাশপথে খাবার ডেলিভারির কথা ভাবছিলেন জোমাটোর কর্মকর্তারা। সেই লক্ষ্যে ২০১৮ সালে ‘টেক ইগল’ নামে লাখনউ এর এক ড্রোন নির্মাতা সংস্থাকে কিনে নিয়েছিল জোমাটো।

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, নতুন এই প্রক্রিয়াতেও আগের মতোই অর্ডার নেওয়া হবে ফোনে। তবে রেস্তোরাঁ থেকে অর্ডার নিয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে উড়ে যাবে ড্রোন। 

জানা গিয়েছে, ড্রোনের গায়ে একটি বিশেষ বাক্সে থাকবে খাবার রাখার ব্যবস্থা। ড্রোনটি নির্দিষ্ট জায়গায় পৌঁছালে গ্রাহককেই বাক্স থেকে খাবার বের করে নিতে হবে। 

তবে শহরে এই প্রক্রিয়া শুরুর ক্ষেত্রে বেশ কিছু সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। বিমানবন্দরের আশেপাশের অঞ্চলে ড্রোন ওড়ানোর ওপর আইনি নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। তা ছাড়াও নিরাপত্তার কারণেও অনেক জায়গায় প্রয়োজন স্থানীয় প্রশাসনের অনুমোদন। 

যদিও এ বিষয়ে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, সবদিক মাথায় রেখেই বানানো হচ্ছে এই ড্রোন। বর্তমানে বাইকে একটি ডেলিভারিতে জোমাটোর ৩০ মিনিট সময় লাগে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে পারলে ১৫ মিনিটেই আপনার সামনে হাজির হবে পছন্দের খাবার। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা